১)___

তুড়িবাজ পৃথিবী !

 

তুড়িবাজ পৃথিবীতে
ঢলানির মন ভোলানো বেহায়া নাচন !
কাঁপা মন দু'দণ্ড দাঁড়াতে চায়,
এই গরম-নিঃশ্বাস থেকে মুক্ত বাতাসে !

কাল্‌-তলায় কালের অট্টহাসি
বকুলের হাইব্রিড গন্ধ শুঁকে !
আমি মেনে নিয়েছি
দৃশ্যতার চেয়ে অ’দৃশে বেশি কিছু থাকে,
আর ওখানেই আমার ভবিষ্যৎ !

 

২)___

   ঠাঁই...।

এক মুঠো ঠাঁই পেতে...
শক্তি পাথরে করে আঘাত- পায়ের ছাপ বসাতে !
দাঁড়াবার জায়গায় একটু আশ্রয় চাই !

দ্বিধান্বিত যৌবন শুকিয়েছে প্রেম,
মরা মনের অলি-গলিতে নোনা ধরা দেয়ালে-
কতজন কত আঁকিবুঁকি একে গেছে !
তবুও হাতপেতে ভিক্ষে একটু বেঁচে থাকার ।

মুষ্টিবদ্ধ মৃত যুবকের হাতের মুঠোয়-
অভিমানের দ্বিতীয় সুত্র লিখা আছে !
আমি নির্দ্বিধায় পড়ে শুনাতে পারি-
আশ্চর্য! সেখানেও ছিল বেঁচে থাকার লোভ !
অমরত্ব টাইপের ঝাঁজালো গন্ধ !

তবে আমারও একটুখানি ঠাঁই হোক
তোমাদের পেছনে শেষ লাইনের শেষ দিকে !

_নৈশতরী, রাজশাহী । ১৪-১১-২০১২