আজকাল একটু দূরত্ব রাখি,

সময়ের সীমানায় দেই কাঁটাতারের বেড়া

চেনা রাস্তায় রোডব্লক একটার পর একটা।

কবিরা খুব বিচিত্র হয়!

এই বোধ জানতেই বোধহয় কবি হয়ে

একটার পর একটা কবিতায় দূরত্ব মেপে যাই।

নায়ক-নায়িকার কষ্ট বুনে গান শোনাই,

মনের পথ বেয়ে ডেকে এনে

চুপিচুপি কষ্টের ডুবোজলে ডোবাই।

অসুখে নীল হয়ে যাওয়া মুখ

দেখতে মোটেই খারাপ লাগে না।

বরং আরেকটা কবিতার তেল-মসলা পেয়ে যাই।

অভিমানের রঙ আমার হাতায় লেগে গেলে,

আমি আরেকটু রঙ দিয়ে

রাঙ্গিয়ে রাঙ্গিয়ে একটা সুর বাঁধি কষ্টের।

 

সীমান্তের কাঁটাতার,

মেয়ে তোমার চোখের উপর আজকাল,

ওপারের নিষিদ্ধ ভূমিতে

আঙ্গুলে আঙ্গুলে পা ফেলা মানা,

বিজয়ের পতাকা উড়াতে মানা...

মেয়ে তোমার ভালোবাসার অস্ত্র তুলে রাখো

এ ভূমি ইরান, আফগানিস্তান নয়।

 

এ বুকের পাথর মোম গড়নের খেলনা নয়

আমি তোমায় নীল করে দেবো অসুখে...

আমি যে কবি, সীমান্তে কাঁটাতার ঘেরা দূরত্বে।