আমার ইছে হয়
ইচ্ছের গায়ে নিল-সবুজ রঙ মাখিয়ে রাঙ্গাতে,
যেন ইচ্ছেরাই হিংসায় জ্বরে পুরে মরে।
আমার ইচ্ছে হয়, দেখতে-
প্রেম বালিকার দু’বাহু চেপে
সুগন্ধ সন্ধ্যে বেলায় চুপচাপ আমার গোপন প্রস্থান।
চাপা ভয় গুলোকে সারারাত আমার পাশে
আদরে শুইয়ে রেখে দেখতে ইচ্ছে করে
ওরা কি ভয় পায়!
আমার উষ্ণতার নিঃশব্দ শব্দাবলিকে।


আমার মুখের চারপাশে ইচ্ছেরা ঘোরাঘুরি করে আজকাল,
আধোঘুমন্ত অন্ধকারে ওরা মুখ লুকায়
পথ ভ্রষ্ট বুকের গভীরে।
আমি জেগে আছি, ইচ্ছেরাও জেগে আছে
আমাদের ইচ্ছে হয়, ইচ্ছে হয়-
নীরবতায় আমাদের ঋণ বাড়ে শব্দের কাছে,
ছায়া গুলো কাছে।
কোনদিন অন্তরীক্ষে কর্কশভাবে আমার ও ইচ্ছেরা মাঝে
বন্ধনমুক্ত সত্যবাদী হাসি ঘুরে ফিরে কাঁদে,
নিঃসংগ সীমানায় তিনপ্রহর তবু ঠায় দাঁড়িয়ে থাকে
আমার সকল ইচ্ছে।
নাগরিক অবিন্যস্ত তীব্র নির্জনতায়
আমার ভালোবাসাময় চোখ গুলো,
হাত-পা, নখ গুলো চুপ করে থাকে আজ-


ইচ্ছেদের রাগ হয়, হয় অভিমান
আমি ওদের পুর্ণতা দেইনি কখনোই।
ওদের যন্ত্রণায় রেখে
আমি কান পাতি বাতাদের আওয়াজে
অভিমানে ওদের চলে যাওয়ার সরল পথে।
অতঃপর আমি শুরু করি নতুন কবিতা
প্রবন্ধ, রম্য কিংবা অনুবাদ
আর নাম দেই “আমার ইচ্ছে হয় এখনো”।।