রবি ঠাকুরের শ্বশুরালয়ে কিছুক্ষণ

রোদের ছায়া
০৬ মে,২০১৪

আসছে ২৫শে বৈশাখ, কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মবার্ষিকী। এই পোস্ট টি তাঁর প্রতি আমার শ্রদ্ধার ছোট্ট একটু অংশ।
কিছু দিন আগে সুযোগ হয়েছিলো কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শ্বশুরবাড়িতে কিছুক্ষণ কাটাবার।
বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শ্বশুরালয় বাংলাদেশের যশোর জেলায় অন্তর্গত ফুলতলা থানার দক্ষিণডিহি তে অবস্থিত।
এটা বাড়ির মূল প্রবেশ পথ;
Image4043

Image4039
খুব আহামরি কিছু না তবে রবি ঠাকুরের স্মৃতি বিজড়িত জায়গায়টি আমার দেখার ইচ্ছা ছিল অনেক দিনের।
ব্যবস্থাপনাও খুব ভালো মনে হল না, কেয়ারটেকার কে অনেক খুঁজে আনতে হয়েছিলো। বিদ্যুৎ না থাকলে আর কোন বিকল্প বুবস্থা রাখা হয়নি।
বাড়ির সামনে মৃণালিনী দেবীর বাবা ও মায়ের দুটি আবক্ষ মূর্তি আছে।(সম্ভবত)
Image4063
আমরা যেদিন গেলাম সেদিন খুব কুয়াশা ছিল তাই ছবি গুলো তেমন ভালো আসেনি। বাড়ির ভিতরে রবিন্দ্রনাথের বেশ কিছু ছবি আছে । আছে তাঁর স্ত্রী মৃণালিনী দেবীর ছবি। তাঁর দুই একটি এখানে দিলাম। তখন বিদ্যুৎ ছিলনা বলে ছবি তেমন ভালো আসেনি।
Image4052
Image4053
Image4054

মৃণালিনী দেবীর ছবি
Image4057
রবি ঠাকুরের জীবনী সংক্ষেপ
Image4059
খুব বেশি সময় লাগে না পুরো বাড়িটি ঘুরে দেখতে। কর্তৃপক্ষ যদি একটু নজর দেয় তাহলে হয়তো রবি ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত বাড়িটি আরও আকর্ষিণীয় হতে পারে। অনেকেই জানেই না যে রবীন্দ্রনাথের শ্বশুরবাড়ি এখনও আছে। আরও প্রচার পাবার দাবী রাখে এটা। শেষে কবির আরও দুটি ছবি যোগ করছি।
Image4060
Image4051
কেউ যদি যশোর বা খুলনা বেড়াতে যান, দেখে আসতে পারেন দক্ষিণডিহি রবীন্দ্র কমপ্লেক্স টি।

কিভাবে যাবেনঃ
বাসে ঢাকা থেকে খুলনাগামী যেকোন ভলভো/এসি/ননএসি পরিবহনে [হানিফ, ঈগল, সোহাগ, এস আলম, শ্যামলী ইত্যাদি ]। ভাড়া ৪০০ থেকে ৮০০টাকা। নামতে হবে বেজেরডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড। সেখান থেকে ভ্যান/অটোরিকশা যোগে সহজেই গন্তব্যে পৌঁছে যাওয়া যাবে।
ট্রেনে গেলে নামতে হবে নওয়াপাড়া/ খুলনা। খুলনা/যশোরগামী বাসে বেজেরডাঙ্গা নেমে ভ্যান / অটোরিকশা যোগে গন্তব্যে পৌছানো যাবে।

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
এফ রহমান বাংলাদেশের প্রত্যেকটি জাদুঘরে লেখা থাকে ছবি তুলিবেন না। ছবি তোলা দন্ডনীয় অপরাধ। এই স্মৃতি জাদুঘরে কি এরকম কিছু লেখা ছিলো?
রোদের ছায়া হয়তো ছিল কিন্তু সেটা চোখে পড়তে হবে তো!! বিদ্যুৎ না থাকায় ভিতরটা ভীষণ অন্ধকার ছিল, ছিল না কোন গার্ড , কোন নিয়ঙ্কানুঞ্চখে পড়েনি আমার ।
অারহান সাবির অনেক কিছু জানা গেল। ধন্যবাদ
মিলন বনিক ছায়া আপু...অনেক ভালো লাগলো...জানা হলো...দেখার আগ্রহটা বেড়ে গেল,,,,
রোদের ছায়া অসংখ্য ধন্যবাদ। সুযোগ পেলে ঘুরে আসবেন। ভালোই লাগবে।
রোদের ছায়া অনেক ধন্যবাদ জুয়েল ভাই।
এফ, আই , জুয়েল # খুবই সুন্দর । দূর্লভ তথ্য । তোকে ধন্যবাদ ।।

আগামী সংখ্যার বিষয়

গল্পের বিষয় "উষ্ণতা”
কবিতার বিষয় "উষ্ণতা”
লেখা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৫ ডিসেম্বর,২০২১

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

অক্টোবর ২০২২ সংখ্যার বিজয়ী কবি ও লেখকদের অভিনন্দন!i