# কারো নাম---' জয়-হরী ' , কারো নাম---' জয়া ' /  কাকো দেখি দেয় মাথাত ঘোঙ্গর---কাকো যায় ডেয়া / তোক না দুঁষো---মুই মোর কপাল দোঁষো / তুই আম খাইস---মুই কোঁয়া চুঁষো / মাইরবার সময় মারনু মুই বত্রিশ মাগুর / খাবার সময় খানু মুই চশমা ঠাকুর // = = = ব্যাখ্যা---[ জয়-হরী আর জয়া---এরা দুইজন ভায়রা । এই দুই জামাইয়ের মধ্যে জয়া ঘর জামাই হিসাবে থাকে । তার তেমন কদর নাই ।   জয়-হরী শ্বশুর বাড়ীতে আসলে জয়ার চেয়ে সে অনেকে বেশী আদর-সম্মান পেয়ে থাকে । একদিন জয়া মাছ ধরতে যেয়ে অনেক মাগুর মাছ মেরে নিয়ে এসেছে । শ্বাশুরী-বউ সমেত মাছগুলো রান্না করছে । আর জয়া গোছল করে বাঢ়ীর পিছন দিকে নিরিবিলি ছায়ার মধ্যে মাদুর/সপ বিছিয়ে শুয়ে শুয়ে বিশ্রাম নিচ্ছে । এমন সময় জয়-হরী শ্বশুর বাড়ীতে বেড়াতে এসেছে । শ্বাশুরি তাড়াতাড়ি যেতে যেয়ে জয়ার দেহের উপর দিয়ে লাফ দিয়ে চলে গেছে---আর আঁচল টেনে ঘোমটা করেছে । আম কেটে দিয়েছে । জয়-হরী আম খেয়েছে । আর আমের আঁটিগুলো জয়া চুষতেছে । ভাত খাওয়ার সময় জয়-হরীকে মাছের ভাল ভাল অংশ গুলো দেয়া হয়েছে । আর জয়াকে দেয়া হয়েছে---মাগুর মাছের কানসেকা--( চশমা ঠাকুর ) ।। ---জয়া মনের কষ্টে এই কথা গুলো বলেছিল ।।