গোধুলিবিছানো আলপথে খুঁজি আলতা-পা তার:

শিয়ালকাঁটার ঝোপ চুপচাপ

হাঁটুভেঙ্গে বসে থাকা ঘাসফড়িং

অলক্ষে খসে পড়া নোলকের অন্তর্হিত ঝিলিক।

 

সোনালি নদীর জল – সূর্যের সন্তরণ,

এ ঘাটেই ছিল বাঁধা বিষাদের নাও –

উবে যাওয়া স্বপ্নের বোঝাই।

বৈঠা ফেলে ধমনির স্রোতে

কেমন তার নিষ্প্রদীপ অন্তর্ধান।

 

বিলের গভীর থেকে কিন্নর-স্বর অমারাতে

পাঠায় কেমন দুষ্পাঠ্য বারতা

সে কি তবে রেখে গেছে ঠিকানাবিহীন

অস্ফুট কান্নার ধ্বনি, অদৃশ্য অশ্রুর প্রপাত?

 

৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮