ব্যক্তিগত তথ্য

নামের প্রথম অংশ জসিম উদ্দিন
নামের শেষ অংশ জয়
লিঙ্গ পুরুষ

যে নামে সার্টিফিকেট তৈরী হবে

সার্টিফিকেট নাম

ব্যক্তিগত তথ্য

আমার কথা নাম : জসিম উদ্দিন জয়। পিতার নাম : আব্দুল ছাত্তার খান। মাতার নাম : আমেনা বেগম
স্ত্রী‘র নাম : ফারহানা নাজনীন (এম.এ সাইক্লোজি প্রথম বিভাগ)। সন্তান : জয়ীতা ও নন্দীতা (দুই মেয়ে )
বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা : ৫৫২/১০, ( তৃতীয় তলা) ( উত্তর ইব্রাহীমপুর, কাফরুল, ঢাকা।
ফোন ( বাসা ) +৮৮০২৮৮৭১৯৮৮, মোবাইল : ০১৬৭১৮৮৮৪২০, ০১৭২৭৭২৯৬৬৬
মুক্তাচিন্তার মানুষ, বহুমূখী প্রতিভার অধিকারী, প্রযুক্তিবিদ, আধুনিক সমাজ সংস্কারক জসিম উদ্দিন জয় তিনি ঢাকা জেলায় জন্মগ্রহন করেন, পৈত্তিক ভিটা কুমিল্লা জেলা।
শিক্ষাগত যোগ্যতা  কাঠালবাগান খান হাসান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৫ম শ্রেণী ধানমন্ডি স্কুল থেকে ৮ম শ্রেণী এবং পিরেরবাগ হাই স্কুল থেকে এসএসসি ( বিজ্ঞান বিভাগে * প্রথম বিভাগ) ১৯৯৩ সালে। সরকারি বাংলা কলেজ থেকে ১৯৯৫ সালে বিজ্ঞান বিভাগে ২য় শ্রেণী এবং বিএসসি (পাস) ২য় বিভাগ ১৯৯৮ ( নট্টাম্স থেকে কমপিউটার ডিপ্লোমা ১৯৯৫)সাল ।
পেশা ও বর্তমা অবস্থা  জয় কমপিউটার, শাহআলী প্লাজ মিরপুর-১০, এর স্বত্বাধিকারী, (১৫ বছর ) ( সেলস্ সেন্টার ) (ট্রেনিং সেন্টার)  জাতীয় পাক্ষীক নির্ভীক সংবাদ এর সাহিত্য সম্পাদক (৮ বছর )  সারা দেশেব্যাপী শিশুদের ডিজিটাল শিক্ষাব্যবস্থা বাস্তবায়নের জন্য বিজয় বাংলার প্রনেতা মোস্তফা জব্বার এর সাথে কাজ করছেন ।
প্রকাশিত বই সমূহ
ফুলকি বই কেন্দ্র থেকে প্রকাশিত “ছোটদের মজার হাসির গল্প”, ( ২০০১ বাংলা একাডেমীর বইমেলায় প্রকাশিত ) “ গল্পে গল্পে আনন্দ ”,( ২০০২ বাংলা একাডেমীর বইমেলায় প্রকাশিত ) হারানো মিউন্সার, সাতরঙা মুকুট ( ২০০৬ ) মোহনা প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়, ছোট বিজ্ঞানী, হাবা বিজ্ঞানী, (২০০৭) শিশু কিশোর মেলার প্রকাশনি, এসকে মেলা থেকে প্রকাশিত “পাগলা রোবট”, “গল্পে গল্পে হাসি” জয় প্রকাশন থেকে প্রকাশিত বড়দের উপন্যাস “অচেনা স্বপ্ন” এসকে মেলা থেকে প্রকাশিত বড়দের উপন্যাস “সবুজ ভালোবাসা” । প্রকাশনার পথে “ছড়ার রাজ্যে আমি আজ যে” “মীনার স্বাধীনতা” ময়ুর পংখী ফাউন্ডেশন এর প্রকাশনি থেকে প্রকাশিত বই “ছড়া কেন এত মজা” (সম্পাদিত), “পাখীর প্রতি ভালোবাসা” (সম্পাদিত) এবং রংধুনু ম্যাগাজিন এ নিয়মিত লেখা প্রকাশ, এসকে মেলা থেকে “বইটা কিন্তু ভ’তের” ((সম্পাদিত) মোহনা প্রকাশনী ও সুবর্ণারেখা প্রকাশনী থেকে এ বছর বেরনোর পথে ছোটদের বই “পরী রোবট” (সাইন্স ফিকশন) টিংটুকুর বুদ্ধি,।
লেখালেখি
প্রত্রিকার সম্পাদনা :  রক্ত ঝড়া ফাগুন ( সম্পাদক) ( ১৯৮৮ সালে ), ১৯৯৩ এ মাসিক রূপবাংলা প্রত্রিকার সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। উজ্জ্বীবন প্রত্রিকার নিয়মিত শিশু সাহিত্য প্রকাশ, মাসিক শিশু প্রত্রিকা (প্রধান প্রতিবেদক) ( ১৯৯০) দৈনিক মাতৃভুমি (১৯৯৬)(স্টাফ রিপোটার্র) (বাংলার বাণী, মুক্তকন্ঠ, ভোরের কাগজ -এ ছোটদের পাতায় লেখক ) (১৯৯৫-৯৭) রংধনু ম্যাগাজিন এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও নিয়মিত লেখক। ছেলেবেলা পত্রিকায় নিয়মিত লেখা প্রকাশ। বার্ষিক ম্যাগাজিন সুরমা ( সম্পাদক)। বর্তমানে জাতীয় পাক্ষিক প্রত্রিকা নির্ভীক সংবাদ এর সাহিত্য সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছে। সাপ্তাহিক গর্জন প্রত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক (২০১৩)। শিশু কিশোর মেলা প্রত্রিকার প্রধান সম্পাদক ছিলেন ১৯৯৬-৯৭।
সাংগঠনিক পরিচিতি  বর্তমানে বাংলাদেশ চাইল্ড ফান্ডামেন্টাল ডিমান্ড ফাউন্ডেশন (ইঈঋউঋ এর (সদস্য সচিব) রংধনু ফাউন্ডেশন, সুরমা সাহিত্য পরিষদের (সাধারণ সম্পাদক) বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক জোট এর কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক। মিরপুর কমপিউটার সমিতির আহবায়ক। “কোয়াব” এর সদস্য। জাতীয় শিশু কিশোর সংগঠন ফুলকির সাংগনিক সম্পাদক। রংধনু ম্যাগাজিন এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক।
পুরুস্কার  জাতীয় শিশু কিশোর ম্যাগাজিন ও রংধনু ফাউন্ডেশন থেকে ২০১৩ সালে শিশু সাহিত্য পুরস্কার ও বিশেষ সম্মাননা পুরুস্কার অর্জন করেন। মাসিক বিবর্তন প্রত্রিকা থেকে সাহিত্য পুরুস্কার এর জন্য মনোনিত হয়েছিলেন। ১৯৯৮ সালে শিশু কিশোর মেলা থেকে সাহিত্য পুরস্কার লাভ। ২০০১ সালে শিশু সংগঠক হিসাবে পুরস্কৃত হয়েছিলেন। ২০১৪ সালে এম.এ মেমোরিয়া একাডেমী থেকে সাহিত্য সম্মাননা লাভ। ব্যাপ্টিষ্ট মিশনারি ইন্টিগ্রেটেড স্কুল ( বিএমআইএস) থেকে সম্মাননা লাভ। (২০১৪ ইং ২ আক্টোবর, শিশু অধিকার সাপ্তাহ এক অনুষ্ঠানে) বিসিএফডিএফ ফাউন্ডেশন থেকে শিশু সাহিত্য পুরুস্কার (২০০৯) অর্জন করেন। সুফী মোতাহার হোসেন সাহিত্য পুরুস্কার ২০১৪ ইং এ ( শিশু সাহিত্যিক ) হিসাবে মনোনিত হয়েছেন। ময়ুরপঙ্খী ভলেন্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০১৪ ইং এ শিশু সাহিত্যে অবদান রাখায় শিশু সাহিত্য পুরস্কার ২০১৪ ইং অর্জন করেন। রংধুনু সাহিত্য পুরস্কার । এমভিইএসসি বিশেষ সম্মাননা। মিরপুর কম্পিউটার সমিতি থেকে প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক হিসাবে তাকে সম্মাননা প্রদান করেন শাহআলী প্লাজা এমসিএস কম্পিউটার মেলা ২০১৪ ইং উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে। সুফী মোতাহার হোসেন সাহিত্য পদক ২০১৩-১৪ লাভ করেন ।