অন্তরালে বেড়ে ওঠে
ঈর্ষার মহীরুহ ।
ঝড়ো দমকায় -
উড়ে যায়
পুড়ে যায়
লোনা ঘাম হয়ে
ঝরে যায়-
সপ্ন ও কিছু স্বাদ আহ্লাদ ।
পড়ে থাকে শূন্য চোখে
দুই ফোঁটা রঙ হীন জল ।
শত ব্যথাতুর স্বপ্নেরা
ভিড় করে
মনিবের পানশালার
আলিসান আঙিনায় ।
বিষ মাখা চোখের আক্রোশে
নিকোটিন মাখা হাতের থাবায়
সপ্ন গুলো চুরমার হয়
হারিয়ে যায় অজানায়
পলকের আড়ালে ।
কেউ বা চলে যায় চিরতরে-
বিদায় বলে।
অঙ্কুরিত কিছু স্বপ্ন?
নিরাশার পানসিতে
পথ চলে বৈঠা বিহীন ।
অট্ট হাসিতে মাতম তলে
সাধু মহাজন!
হিসাব কষে পাতায় পাতায়
কাল থেকে মহাকাল।
হিংসার চাপে স্বপ্ন মরে
গড়ে শুধু ইতিহাস,
ইতিহাস পড়ি
ইতিহাস খাই
মহাজন দেয় জল
এভাবেই চলে কালের চাকা
তুই নিচ কেন এতো বল ।