এই কবিতায় আমি ছোট পরিসরে শীতের অবগাহনে জেগে থাকা প্রকৃতির একটি রুপ-মাধুর্য তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। প্রকৃতির মাঝে ডুব দিলে কেমন যেন হালকা লাগে সবারই যখন কখনো কখনো বিষিয়ে উঠে যাপিত জীবনের ভার, চলন, ও একপেশে সহাবস্থান। তখন কেন যেন ছুটে চলে যেতে ইচ্ছে করে পাতার সবুজে ঘিরে থাকা শত রঙের ভিড়ে। কুয়াসার চাদরে শীত আসে। এই কুয়াসায় কতো প্রশ্বাসের কতো উত্তাপ হারিয়ে মিলিয়ে যায় রোদের ললাটে। জীবন মাঝে মাঝে মলিন শীতার্ত হয়ে কুঁচকে যায়। সময় সব ঠিক করে দেয়।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৯ মে ১৯৮৫
গল্প/কবিতা: ৮টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - শীত (জানুয়ারী ২০২০)

সিক্ত ঘাশফুল
শীত

সংখ্যা

পুলক আরাফাত

comment ৭  favorite ০  import_contacts ৯৬
হিম নিশপিশ কিছুটা হালকা অবিরাম বাতাস
বইছে গভীর আবেগে।
শীতের এই সন্ধ্যায় খোলা বারান্দা ঘিরে থাকা গোলাপগুলো
কেমন যেন কাতর হয়ে গেছে।
দিনের মধ্যমণিতে ক্যাকটাস-সহ
তাজা হয়ে যাবে হয়তো লাল পাপড়িগুলো।
ছেলেটির রোজ রাতের হাতে গড়া
এই ব্যাক্তি বিলাসিতার চাঞ্চল্য দেখলে
সত্যি ভালো লাগে।
সাথে যদি থাকতো
সাদা-গাঢ় গোলাপির বাহারে কিছু
রাতে মলিন ঘাশফুল।
তবে তো আরও কোমল তরুণ লাগতো
ছিমছিমে গোছালো ঝকঝকে এই বারান্দাটিকে।
গতকাল রাতে কলি ছেড়ে
দু’টি ফুল ফুটেছে ঋতুর মায়ায়।
আরও আছে ফোটার অপেক্ষায়।
নিলয়ে নিভৃতে জানা যতন পরশে হাসুক
স্নিগ্ধ সময়ের ব্যাকুল রঙিন প্রহর।
ফুলের হাসিতে মনও হাসে-
কতো যতনে গড়া বিশাল পৃথিবী,
কুয়াসায় হারায় রিক্ত বিলাপ।
জীবনের উত্তাপে সিক্ত শীতও হার মানে।
মনের ক্যানভাসে দাগে মিশে রয়-
কতো সময়ের কতো দীর্ঘ বহর।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement