থুই কই আমার বড়াই?
উঠোনে উচ্ছব করে মাড়াইয়ের ধান
শিশিরের হার পরে ছুঁতে চায় রোদের আদর।
তৃপ্ত কিষাণ ছোঁয় ঋষভ-লাঙ্গুল
কিষাণী নাড়ায় নথ ঝাড়াইয়ের তালে।

রাখি কোথা উপছানো খুশি?
ঢেঁকির নোড়া যেন ঢাকের কুর্দন
বাতাস মাতাল আজ সানকির সুখে
কাড়াকাড়ি ছড়াছড়ি হাতেহাতে পিঠা আর পুলি
শিশুটি চেটে চলে নারকেল-মালা।

হারাই কোন পথে আজ এবেলা?
কে আসে হেলেদুলে মেলা হতে; কে যায় হাটে!
কেউ দেয় বেসুরো শিস, কারো ঠোঁটে বাঁশি
বাতাসা চিবায় কেউ, হাতে কাউনের খই
কিছু মুখ দ্রুত ধায় মৃগপ্রায় আঁচলের তলে।

ভাঁজি কেমনে হৃদয়ের সুর?
কে দোলায় কলসি জলে অবেলায় -
বুক তার তরঙ্গ তোলে জলের ছায়ায়।
কাকবলি শেষ হলে সে দাঁড়ায় দূরে -
বিশাল আকাশ দ্যাখে; আমি দেখি তারে।