চক্র

মা সংখ্যা

আহমেদ সাবের
  • ৮৪
  • ৭৩০
হাসপাতালের লিফট থেকে মায়ের লাশটা বের করতেই
আমার বোন রমিজা আমার ডাক নাম ধরে
চিৎকার করে বলে উঠলো, ‘তোতা ভাই,
মারে খাটে শোয়াইয়া কই লইয়া যান?’
হাসপাতালের ফিনাইলের গন্ধ ছেপে
আতর লোবানের গন্ধে বাতাস ভারী হয়ে উঠলো।
মাজু ফুফু ওর মাথার কাপড় সামলে দিতে দিতে
মৌমাছি হয়ে গেলেন। আমার আর কিছু মনে নেই।
কোন এক অদৃশ্য মন্ত্রে, আমি যন্ত্র হয়ে গেলাম।

এখন আমি আমাদের আপন বসতে।
বিকালের সূর্য দিগন্ত ছুঁই ছুঁই করে ছুঁয়ে ফেললো।
মাগরেবের আজান হয়ে গেছে একটু আগে।
ড্রইং রুমের কলগুঞ্জন ছেড়ে আমি মায়ের ঘরে এলাম,
মাকে যায়নামাজে বসিয়ে দেবার জন্য।
জরিনার মা মায়ের জায়নামাজটা এখনো পেতে দেয়নি বলে,
বিরক্ত হয়ে জরিনার মাকে ডাকতে গিয়ে দেখলাম,
আমার চার বছরের মেয়ে বুবাইর মুখ
অবিকল মায়ের মুখ হয়ে গেছে।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
Md.Nazmul Hasan Shanto শেষের কথাটায় আমি এই যেন বুয়লাম,সব মেয়েদের দেখে যেন মা খুজে পেলাম,যুদিও থাকে তারা যার যা স্থানে.......আমিও হারাব একদিন আমার মাকে আমি যেন খুজে পাই,অন্য কার মাঝে আমার মাকে.......ধন্যবাদ অনেক ভাল লিখেছেন ,
ড. জায়েদ বিন জাকির শাওন পড়তে পড়তে মনে হলো যেন একটা গল্পকে কবিতার লিনে দিয়ে লেখা .
গুলতি বাবু ভাইয়া জনম অইছে আমার হাচা কতা কবার লাইগ্যা। আপনার কমমেন্ট দেইখ্যাই আমি আগাইলাম। আফনের কতা আমি লাইফ করসি। অয়েলকাম। মনে দুক নিয়েন না।
গুলতি বাবু ভাইয়া জনম অইছে আমার হাচা কতা কবার লাইগ্যা। আপনার কমমেন্ট দেইখ্যাই আমি আগাইলাম। আফনের কতা আমি লাইফ করসি। অয়েলকাম। মনে দুক নিয়েন না।
আহমেদ সাবের গুলতি বাবু - “এখানে আসলে কবিতা বা গল্পের প্রতিযোগিতা হয় না। এখানে হয় বন্ধুত্বের প্রতিযোগিতা। ...। যিনি যত বেশি গল্প-কবিতার বন্ধুদের সময় দিতে পারেন, ভালো ভালো কমেন্ট করতে পারেন তাদের উজ্জ্বল সম্ভাবনা থাকে।“ আপনার সাথে সম্পুর্ন একমত। এমাসে গল্পের সংখ্যা ১২২ আর কবিতা ৪৪০। একজন পাঠকের পক্ষে সব গল্প আর কবিতা পড়ে উঠা কি সম্ভব? তাই সবাই তাদের বন্ধু কিংবা যারা তাদের লেখায় কমেন্ট করেছেন, তাদের লেখা পড়ছেন। এছাড়া ফেক ভোট তো আছেই।পুরষ্কার পাওয়ার পর লিখেছিলাম, “তবে এ পুরষ্কার পাওয়াতে সুখের চেয়ে দুখের পাল্লাই বেশী ভারী। দুঃখটা এ জন্যেই যে, অন্ততঃ বিশ জন লেখক আমার চেয়ে ভাল লেখেও পুরষ্কার পেলেন না”। কিন্তু সমাধান কি? আমি প্রস্তাব করেছিলাম, পাঠকদের ভোটে ১০ টি গল্প এবং ২০ টি কবিতা বাছাই করে তার মধ্য থেকে Expert Panel দিয়ে ৩ টি গল্প এবং ৩ টি কবিতা মনোনীত করে পুরষ্কার দেয়ার জন্য। ফাতেমা প্রমি ছাড়া কেউ এ প্রস্তাবটা সমর্থন পর্যন্ত করলেন না।
গুলতি বাবু কে কবি আর কে অকবি তা জীবনানন্দ দাশই বলে গেছেন। কারণ তিনি বলেন, ‘সবাই কবি নয়, কেউ কেউ কবি’। একটা কথা গল্প-কবিতার প্রতিযোগিতার েেত্র এখন স্পষ্ট প্রতীয়মান, এখানে আসলে কবিতা বা গল্পের প্রতিযোগিতা হয় না। এখানে হয় বন্ধুত্বের প্রতিযোগিতা। যার বন্ধু বেশি যে, যিনি যত বেশি গল্প-কবিতার বন্ধুদের সময় দিতে পারেন, ভালো ভালো কমেন্ট করতে পারেন তাদের উজ্জ্বল সম্ভাবনা থাকে। ‘মানে সাকসেস ইন লাইফ’। আর যাদের বন্ধুর সংখ্যা নিতান্তই কম, বা নতুন লেখক এই সাইটে, তাদের জন্যে হাপিত্যেশ করে কমেন্ট নিতে হয়। এখানে কেউ লেখার জন্যে পুরস্কার পায়নি। পুরস্কার বন্ধুদের ভালোবাসায়।
ফয়সাল আহমেদ bipul খুব ভালো লাগলো ...........
দীপক সাহা অভিনন্দন হে বিজয়ী ! আশা করি এভাবেই সবসময় আমাদের পাশে থাকবেন।

০৭ ফেব্রুয়ারী - ২০১১ গল্প/কবিতা: ২ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

বিজ্ঞপ্তি

“অক্টোবর ২০২১” সংখ্যার জন্য গল্প/কবিতা প্রদানের সময় শেষ। আপনাদের পাঠানো গল্প/কবিতা গুলো রিভিউ হচ্ছে। ১ অক্টোবর, ২০২১ থেকে গল্প/কবিতা গুলো ভোটের জন্য উন্মুক্ত করা হবে এবং আগামি সংখ্যার বিষয় জানিয়ে দেয়া হবে।

প্রতিযোগিতার নিয়মাবলী