বাঁশমতি বালকের একা সংসার
অহং হাঁটে কাঁধে চেপে তার
এলাচ সুবাস ছাড়ে বালিকার চাল
অবহেলায় লাল হয় এলাচের গাল
প্রেমেতে ভয়, কি-বা শংশয়, বাঁশমতি এড়িয়ে যায় এলাচের ছায়া...

এলাচ এলাচ ঘ্রাণে মেতেছে মন
বালিকার গা ঘেষে প্রতিটি ক্ষণ
জাফরানে ফিকে বাঁশমতি-এলাচ
জড়ানোয় উবে যায় আদাব লেহাজ
উচ্ছাস নির্দয়, এভারেষ্ট জয়, এলাচ বাড়িয়ে চলে বাঁশমতির মায়া...

জলে মিশে জাফরান ছেড়েছে রঙ
এলাচ বালকে চায় বাঁশমতি ঢঙ
দু'জনাই জড়ো আজ অচেনা উনুন
আগুনের আঁচেতে আলগা বুনন
গলাগলি, গালাগালি, বালিকা তাড়িয়ে যায় বাঁশমতির ছায়া...

বাঁশমতি বালকের একা সংসার
দুঃখ হাটে যে পাশাপাশি তার
সুবাসিত নয় আর এলাচের চাল
কষ্ট রঙে রাঙে বালিকার গাল
ভালবাসা, মিছে আশা, এ যে বাঁশমতি এলাচের ক্ষনিকের মায়া…