সেদিন মাঝ রাতে
ঘুম ভেঙ্গে ছাদে একা একা,
রুপালী চাঁদের আলো মেখে
একাকীত্বকে রাঙানোর অপচেষ্টায় মেতে উঠি!

গোল থালার মতো সেই চাঁদের আলোয়
ভেসে উঠে তোমার অপরুপ মুখ,
সহস্র জোনাকির আলো ম্লান করে দিয়ে
সহসা হৃদয়ে জাগে অনাবিল সুখ।

আজ কতদিন তুমি পাশে নাই,
চলে গেছ না ফেরার দেশে। তুমিহীন
নিঃসঙ্গ প্রহরগুলো কেটে যায় নিঃশব্দে!
আর আমি হৃদয়বিহীন হয়ে এক মাঝরাতে-
তোমায় অনুভব করি ব্রেইনে, হৃদয়ে-
বিস্মৃতির অতলে স্মৃতির সাদা-কালো ঝিল্লিতে।

নারিকেল গাছের পাতার আড়াল থেকে
মনে হল তুমি উঁকি দিয়ে গেলে,
পরিচিত চাঁদ ঢেকে গেল তোমার অপার্থিব আলোয়!
পায়ে পায়ে কাছে এলে ছায়াহীন কায়া তুমি,
ফিরিয়ে দিতে সেই হারানো হৃদয়।

ছায়াহীন কায়া... বড্ড অচেনা আজ সেই তুমি।।