রিতি-
নিরবতার আবেশে দু চোখে গাড়ো ঘুম
আমি এক মাঝি ছোট্ট নৌকায় আছি বসে
মায়াবতীর দেখা নেই, মনে প্রেমের ধুম।
ছুপ ছুপ কুঁচি শব্দে ধীর তালে বৈঠা চলে
দু হাটু ভাজ করে কাজল চোখে তুমি বসে
বাহারি ছোপের শাড়ি হাতে কিচি চুল কানে ঝুম
খালি পায়ে আলতা যেন নিঝুম রাতে কলি কুসুম
বুকের ভেতর খা খা করে, নিশ্চুপ।

তোমার চোখের কোণে শিশির বিন্দু
ইচ্ছে হয় দুই হাতে চিবুক তুলি
দোপাট্টা শাড়ি আচল ওড়ে বাতাসে
মেঘের ভেলায় ভাসছি যেন আকাশে
মায়াবি চোখের তারায় যায় হারিয়ে।
বোধোদয় হলে আর এক নতুন যুগ
ভিন্ন ধারায় দুজনা, তা প্রকৃতরি অসুদ
মনের গহীনে হাতড়ে ফিরি তুমি গেছ দুরে
বিবেকের যাতনায় বাধা দেবনা কারো সুখে।।