শ্রাবণ

 

 

 

 

 

 

 

 

চলার মত ছন্দ পেল দু'পা
দু'চোখ পেল মগ্ন হওয়ার ছবি
নামবি? তবে আকাশ বেয়ে ঝুপা
মাটির বুকে। শোনা না বৈষ্ণবী-

একতারা না হাজার তারের রাগে
ইচ্ছেমত নতুন কোন সুর
দিনশেষে খুব ক্লান্ত শ্রান্ত লাগে
শুনব তবু একটানা নূপুর

ভেজা বাতাস পেঁজা মেঘের তুলো
যাচ্ছে ধীরে ইচ্ছে হাওয়ায় ভেসে
নেভানো রোদ জ্বললে পথের ধুলো
মণ্ড থেকে স্বরূপে নিমেষে

রোদ জলে এক নতুন রূপের নেশা
এই পোড়ে তো এই চিৎকার, হ্রেষা
এই ভেজে তো এই শুকালো মন
পেছন ফিরে চলল কি শ্রাবণ?