একটি গ্রামের কথামালা

গ্রাম-বাংলা সংখ্যা

sakil
  • ৭০
  • 0
দক্ষিণা পবনের উত্তাল হাওয়ায় ভেসে আসে আম কাঁঠালের
মিষ্টি সুভাস গাঁয়ের পথে।ঈশান কোনে কালবৈশাখী
ঝড়ে ডেকে আনে কারো সর্বনাশ,চিরচেনা গ্রাম-বাংলায়।

তৃষ্ণায় রাখালের গলা শুকিয়ে চাতক পাখির মত
গ্রীষ্মের দাবদাহে প্রতীক্ষা করে কয়েক ফোঁটা বৃষ্টির।
আল্লাহ মেঘ দে পানি দে বলে পাড়ায় পাড়ায় কিশোরিদের
নৃত্তের ঝঙ্কারে বিধাতার বুঝি করুনা জাগে মাঝে মাঝে।

বর্ষার বারিধারা কখন ও করে অসহায়। সবুজের সমারোহ
পুরো গ্রাম ছেয়ে যায়। কদম ফুটে সুভাষ ছড়ায়,নদী নালা
খালবিল অথৈ পানির খেলা।পানসি নৌকায় নববধু বাপের বাড়ি
আসে মহা উল্লাসে।নিজের মাঝে বয়ে নিয়ে এক নবসুখের ভেলা।

কাশফুলে আঁকা শাড়ী ললনাদের বিচরন দীঘির পাড়ে।পদ্ম ফুলে
কেশের শোভা বাড়ায় মন কাড়া অধরের মিষ্টি হাসিতে।
কাঁচা পাকা ধানের সুভাষে গাঁয়ের মাঠে, বাড়ির আঙ্গিনায়
নবান্ন উৎসবে মেতে উঠে গ্রামের বধূ আর কিশোরিরা

বেনীতে লাল ফিতা আর হাতের কাঁচের রেশমি চুড়ির ঝঙ্কার
অক্লান্ত পরিশ্রমের পর ও মুখে মিষ্টি হাসির আভা ,চোখে কাজলের ছটা।
স্বপ্নের বীজ বুনে হৃদয়ে করে ফসলের আবাদ, শস্য , সব্জী আর ফলমূল।


উওরে হাওয়ায় জানান দেয় এল শীত নিয়ে হিম বাতাস
খেজুরের রস ,ভাপা পিঠার মৌ মৌ ঘ্রান পাড়াময়।ফসলের
খলি মাঠে পাড়ার ছেলের দল খেলে ক্রিকেট ফুটবল।

ফুলে ফুলে প্রকৃতি সাজে অপরুপ হয়ে নববধুর বেশে
আমের মুকুল শোভা পায় কোন কিশোরীর নোলক হয়ে।
কোকিল ডাকে গানের সূরে , বাউলের মন দোতরার টানে
গানের পরশ হৃদয়ে ছড়ায় , রাখালের বাঁশির সুর ঢেউ তুলে মনে।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
ওয়াছিম মেধার কি বিকাশ.......... আমি হতবাগ হয়ে তাকিয়ে থাকি আমাদের চিন্তার জগতের প্রসার দেখে....................
প্রজ্ঞা মৌসুমী তোমার কবিতা পড়ে ভাবছিলাম বাংলা সনটা কি সুন্দর প্রকৃতির সাথে মিলেমিশে একাকার হয়ে যায়। একেকটা মাস একেকটা ছবি তুলে নিয়ে আসে। অথচ আজ বাংলা মাসের কয় তারিখ ঠিকমতো মনেও করতে পারিনা। শুধু মাসটাই বুঝি প্রকৃতিকে দেখে। "খেজুরের রস আর ভাপা পিঠার মৌমৌ ঘ্রাণ' এখান থেকেই পাচ্ছি। আজকে সকালে আয়েশ করে পায়েসও খেলাম। এই প্রকৃতিকে দেখলাম তোমার কবিতায়। কবিতার নামটা খুব ভালো লাগলো। খলি মাঠে ফুটবল, ক্রিকেট গ্রামীণ খেলা আধুনিক সংস্করণ হলো তবে তাইতো হচ্ছে এখন। সব মিলিয়ে ভালো লেগেছে।
sakil অনেক ধন্যবাদ মামুন ভাইয়া । চেষ্টা করি সবসময় আগামীতে অব্যাহত থাকবে । আপনার মঙ্গল কামনায়
মামুন ম. আজিজ অনেক সুন্দর সুন্দর বিষয় গ্রাম বাংলর, তবে কবিতা খানা পরিচর্চার দরকার আরও
sakil সকলের ভালবাসায় আমি মুগ্ধ . সকলকে অনেক অনেক শুভেচ্চাক জানাচ্ছি . সবাই ভালো থাকবেন সেই শুভকামনায় .
নিলাঞ্জনা নীল খুব সুন্দর কবিতা.....
রনীল অনেক সুন্দর একটি কবিতা... শাকিল ভাই জানেন তো নয় তারিখ আমাদের পিকনিক ... তাড়াতাড়ি প্লেনের টিকেট কনফার্ম করুন ... পিকনিকে আপনাকে আমাদের মাঝে পেতে চাই.
তানভীর আহমেদ খুব সুন্দরভাবে গ্রাম-বাংলার ছবি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। ঋতুচক্রের আবর্তনও কবিতায় লক্ষ্য করা যায়। এটিও ভালো লাগল। বানানে অসতর্কতা কবিতার সৌন্দর্য নষ্ট করেছে খানিকটা। দৃষ্টি আকর্ষণ : আম কাঁঠালের=আম-কাঁঠালের, নৃত্তের=নৃত্যের, করুনা=করুণা, কখন ও=কখনও, সুভাষ=সুবাস, ছেয়ে=ছেঁয়ে, বিচরন=বিচরণ, শাড়ী=শাড়ি, পর ও=পরেও, উওরে=উত্তরে, ঘ্রান=ঘ্রাণ, খলি=খালি, ক্রিকেট ফুটবল=ক্রিকেট-ফুটবল, নববধু=নববধূ।
এস. এম. কাইয়ুম অনেক অনেক ভালো লাগলো

১৯ জানুয়ারী - ২০১১ গল্প/কবিতা: ২ টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের আংশিক অথবা কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী থাকবে না। লেখকই সব দায়ভার বহন করতে বাধ্য থাকবে।

প্রতি মাসেই পুরস্কার

বিচারক ও পাঠকদের ভোটে সেরা ৩টি গল্প ও ৩টি কবিতা পুরস্কার পাবে।

লেখা প্রতিযোগিতায় আপনিও লিখুন

  • প্রথম পুরস্কার ১৫০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • ্বিতীয় পুরস্কার ১০০০ টাকার প্রাইজ বন্ড এবং সনদপত্র।
  • তৃতীয় পুরস্কার সনদপত্র।

আগামী সংখ্যার বিষয়

গল্পের বিষয় "কষ্ট”
কবিতার বিষয় "কষ্ট”
লেখা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৫ জুন,২০২১