মানুষের জীবনের একটা চরম বাস্তবতা হচ্ছে তাকে একদিন মরতেই হবে। যেখানে থাকবে না কোনো আলো, বাতাস, স্বজন! কিন্তু মানুষ এই আলোহীন অন্ধকারকেই ভয় পায়! অভাববোধ করে স্বজনের। এখানে একটা মায়ের অনুভূতি তুলে ধরা হয়েছে। যার সন্তান অন্ধকারে ঘুমাতে পারতোনা ভয়ের কারনে। লাইট জ্বেলে ঘুমাতে হতো তাকে। অথচ আজ সেই সন্তানই কি অঘোরে ঘুমাচ্ছে এক আলোহীন, স্বজনহীন অন্ধকার ঘরে...
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১২ জুলাই ১৯৮৯
গল্প/কবিতা: ১৬টি

সমন্বিত স্কোর

৪.২৭

বিচারক স্কোরঃ ২.৪৭ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৮ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - আঁধার (সেপ্টেম্বর ২০১৮)

আঘোর ঘুমে
আঁধার

সংখ্যা

মোট ভোট ১৫ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.২৭

সুমন আফ্রী

comment ৭  favorite ০  import_contacts ৩০১
কেউ জাগাবেনা কিন্তু!
দেখছো না ও ঘুমাচ্ছে?
ওর দু'চোখে কত ঘুম! ইশ!
আমিও যদি ঘুমাতে পারতাম...!

ওর আজ তাড়া নেই কোনো
কোনো বন্ধুরাও আজ ডাকবেনা খেলতে
বলবেনা ঘুড়ি ওড়ানোর কথা
জানতে চাইবেনা কিছু আজ...

আজ যে ওর ঘুমানোর দিন!
আমাকেও জ্বালাবেনা আর!

ঝাঁকড়া চুল সামনে রেখে বলবেনা,
কী উকুন! একটু বেঁছে দাওতো!
ফাঁকি দেবে না মোটেও, হ্যা...
আর... আর...
ছোট কিন্তু আমি এখনো!
গালে তুলে খাইয়ে দিতেই হবে,
এই আমার এক কথা...!

বলবেনা, ভয় করছে মা!
বসে থাকো না পাশে!
না হলে লাইটটা জ্বালিয়ে দাও...
তুমি তো জানোই,
অন্ধকারে আমার ভয় ভীষণ...!

পাগলটার নাকি ভীষণ ভয়!
আজ তো কোনো আলোই জ্বালা হয়নি
ঘুমাচ্ছে তবুও কি অঘোরে...

এখানে তো কোনো আলোও নেই
ব্যবস্থা নেই কোনো ইলেক্টিকের
তবুও কি নিশ্চিন্তে ঘুমাচ্ছে দেখো!
মাটির বুকে, ঐ অন্ধকার কবরে...

কেউ জাগাবেনা কিন্তু!
দেখছো না ও ঘুমাচ্ছে?
ওর দু'চোখে কত ঘুম...!

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement