বাড়ি বাড়ি কাজ করে
পরী বানু নাম
বাচ্চা কাচ্চা আছে দুটো
অভাবের সংসার।

প্রতি মাসে নতুন শাড়ী
করে যে আবদার
রিক্সা চালক জামাই তার
হয় না ভাল আয় রোজগার।

তিন বেলা অন্ন জুটে না
নেই কোন অভিমান
নতুন শাড়ী পেলে পরে
খুশিতে করে স্লান।

কারো থাকে টাকার লোভ
কিংবা বাড়ি গাড়ি
পরী বানুর শাড়ীর লোভ
নিজেকে ভাবে অভাবী।

আনতে গেল নতুন শাড়ী
বাচ্চা কাচ্চা নিয়ে
মানুষের ভিড়ে পিষ্ট হলো
সরদার বাড়ির উঠনে।

পরী বানুর কান্না চোখে
জোড়া লাশের ভারে
পরের বছর পিষ্ট হলো
রিক্সা চালক জামাই।

নতুন বাড়িতে কাজ নিয়েছে
চলছে বিয়ের আমেজ
কনের জন্য আনলো কিনে
লক্ষ টাকার শাড়ী।

সেই শাড়ী পড়তে গিয়ে
পরীর হলো দেরি
বাড়ির মানুষ দেখতে পেয়ে
করলো সবাই চুল ধরাধরি।

পরীর মাথা এদিক ঘেঁষায়
ওদিক ঘেঁষায় রক্ত ছড়াছড়ি
এ্যাম্বুলেন্স ছুটে চলছে
মৃত্যুর ঘোরাঘুরি।

যাবার আগে পরীর মুখে
ছিল খুশির বেগ
লক্ষ টাকার শাড়ী পড়ে
শেষ নিশ্বাস ত্যাগ।