সম্পদের ,আভিজাত্যের দম্ভে দরিদ্র আর ছোট মানুষকে তাচ্ছিল্য করতে যেমন বাঁধে না, তেমনি ক্ষমতার দম্ভে মানুষকে কীট পতঙ্গের মতো মেরে ফেলতেও অনেক রাষ্ট্রপ্রধান কার্পণ্য করে না।একই ভাবে বিশ্ব রাজনীতিতেও একই দৃশ্য দেখা যায়। ফিলিস্তিনে আর সিরিয়ায় রক্ত নিয়ে হোলি খেলছে ইহুদিরা।আবার নিজেকেও প্রশ্ন করতে ইচ্ছে হয় জেদ করে নিজের মাঝে ইবলিসের অবতার গড়ছি না তো?কারণ আমরা প্রতিনিয়ত নিজেদের মাঝে বড় বড় ভাব বজায় রাখতে চাই।কেউ কারো কাছে হারতে চাই না।এই অশুভ প্রতিযোগিতাই আমাদের মাঝে তৈরি করে জেদ আর অহমিকা।অহংকার আল্লাহর ভূষণ, এটা যে কেড়ে নিতে চাইবে সে ইবলিসের মতো, যে নিজেকে আদমের চাইতে শ্রেষ্ঠ দাবী করেছিল।তাই কবিতাটি বিষয়ের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ন বলেই মনে হয়েছে। বাকীটা বিবেচনার ভার আপনাদের উপরই রইল।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২ জানুয়ারী ১৯৮৩
গল্প/কবিতা: ২৮টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - দম্ভ (জুলাই ২০১৮)

যোগ বিয়োগ
দম্ভ

সংখ্যা

মাইনুল ইসলাম আলিফ

comment ৫  favorite ১  import_contacts ২৬৪
চিন্তার পরিসীমায় ভেসে চলে ভাঁজ হয়ে পড়ে থাকা
কষ্টের নিরীহ নাব্যতা।
দেখি মননে মননে মনীষার মানসে শ্রেষ্ঠতার অপরিমিত প্রতিযোগ।
না হয় অর্জিত সম্পদের নীলগিরি নীলাচলে, পাওয়া না পাওয়ার
যোগ বিয়োগ।
দেখি পায়ে পায়ে হেঁটে চলা শূন্যতায় পিষ্ট দারিদ্রতাকে
তাচ্ছিল্যের অবারিত আমন্ত্রণ।

কষ্টকে পুষে রাখি যতনে অলিখিত কবিতায় শতবার,
দেখি পকেটে রকেট নিয়ে শূন্যে উড়ে কেউ,
ক্ষমতার দম্ভে না হয় কেউ স্তম্ভিত জনপদে কীট পতঙ্গের মতো
মানুষের খুনে লাল করে স্বদেশ, আকাশের ঐ লালিমার মতো।

অহেতুক আষাঢ়ে খরতার চরাচরে, অকারণ পদপিষ্টতায়
গোলা বারুদের গন্ধে ভারী হয় বাতাস,
কামান আর মর্টারে ফিলিস্তিনে সূর্য ডুবে রোজ।
সিরিয়ায় ধ্বংসের সিড়ি বেয়ে উপরে উঠে ইহুদী মশাল।

হায় সমাজ! হায় সম্রাজ্য !
নিথর দেহে ভরে গেছে মানবতার মাঠ।
বড় বড় বলে রোজ, রুদ্ধ করি কপাট।
নিজেই নিজেকে প্রশ্ন করি আবার,
জেদ করে গড়িনিতো নিজেই, নিজের মাঝে ইবলিসের অবতার?

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • মোঃ মোখলেছুর  রহমান
    মোঃ মোখলেছুর রহমান অহেতুক আষাঢ়ে খরতার চরাচরে,অকারণ পদপিষ্টতায় গোলা বারুদের গন্ধে ভারী হয় বাতাস,কামান আর মর্টারে ফিলিস্তিনে সূর্য ডুবে রোজ।সিরিয়াঢ ধ্বংসের সিঁড়ি বেয়ে উপরে উঠে ইহুদী মশাল।,,,, ভীষণ ভাল লাগল,ভোট ও শুভকামনা রইল।
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ২ জুলাই, ২০১৮
  •  মাইনুল ইসলাম  আলিফ
    মাইনুল ইসলাম আলিফ গল্প কবিতায় কি যে হয় বুঝি না।মোখলেছ ভাই কমেন্টস করেছে অথচ কমেন্টের ঘর শূন্য দেখাচ্ছে।
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ২ জুলাই, ২০১৮
  • জামাল উদ্দিন আহমদ
    জামাল উদ্দিন আহমদ আপনার বিশ্বভাবনা মুগ্ধকর! অনেক অনেক শুভেচ্ছা।
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ২ জুলাই, ২০১৮
  • মোঃ নুরেআলম সিদ্দিকী
    মোঃ নুরেআলম সিদ্দিকী দারুণ একটি থিম। সমসাময়িক কাহিনীগুলোকে কবিতার মাধ্যমে রূপ দিয়েছেন। আপনার লেখা সব সময় ভালো লাগে এবং দারুণ হয় নতুন করে আর কিছু বলার নাই। অনেক অনেক শুভকামনা রইল। [ভোট কিন্তু বন্দ, তাই ভোট দিতে পারলাম না]
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ৩ জুলাই, ২০১৮
  • এ. আর.  সিলভার
    এ. আর. সিলভার Khub shundhor bhabe lekha kobita ti. Bhalo laglo. Vote option bondho, naile nishchoi vote rekhe jetam.
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ১০ জুলাই, ২০১৮
  • নাজমুছ - ছায়াদাত ( সবুজ )
    নাজমুছ - ছায়াদাত ( সবুজ ) হায় সমাজ! হায় সম্রাজ্য !
    নিথর দেহে ভরে গেছে মানবতার মাঠ।
    বড় বড় বলে রোজ, রুদ্ধ করি কপাট।
    নিজেই নিজেকে প্রশ্ন করি আবার,
    জেদ করে গড়িনিতো নিজেই, নিজের মাঝে ইবলিসের অবতার? ...............চমৎকার এক কোথায়। আজ দেশে কি বিদেশে দুরবলের উপর সবলের সে কি মরন থাবা । রক্...  আরও দেখুন
    প্রত্যুত্তর . ১৫ জুলাই, ২০১৮

advertisement