কষ্ট আমার রঙিন ঘুড়ি উড়াই তারে নীল আকাশে
কষ্ট নিয়ে স্বপ্ন দেখি বীজ বুনি তার বাতাসে।
কষ্টের কথা ভেবে ভেবে কষ্ট খুঁজি জলে স্থলে
কষ্ট আমায় বানের মতো ভাসিয়ে দেয় সাগর জলে।
কষ্ট জ্বলে মনের ভেতর আগুন হয়ে নেভে না
যতোই তেজি হউক না আগুন দহন সে তো করে না।
পানি দিলে নেভে না আগুন জ্বলে ওঠে দপ্ দপিয়ে
কষ্টের কান্না কেঁদে আমি কষ্ট আরো দেই বাড়িয়ে।
কান্না ছেড়ে হাসি যখন কষ্টে আমি স্বস্থি পাই
কষ্ট ভালো লাগে বলে আমি আরো কষ্ট চাই।
কষ্ট আমি সইতে পারি যতোই আসে আসুক না
কষ্টের ভয় জয় করেছি কষ্ট কাবু করে না।
কষ্ট আমি ডেকে আনি আমার ঘরে আসে সে
আদর করে রাখি তারে ফিরে যেতে চায় না সে।
কষ্টের প্রতি এতো প্রেম হলো আমার কেমন করে
কষ্ট ছাড়া কেমনে বাঁচি আমি দুখী এ সংসারে।
কষ্ট যারা দেয় আমাকে দোয়া জানাই তাদের তরে
কষ্ট ভোগ করি আমি কষ্টে আমার পরাণ ভরে।
কষ্ট আমার থাক না যতো হই না আমি যতোই দুখী
কষ্ট নিয়ে বসত করি আমার জীবন কষ্ট মুখি।
কষ্ট দেখে কষ্ট পেলে কষ্ট পায় কষ্ট রাজা
কষ্ট আমি তাড়িয়ে দিলে দেয় আমাকে কঠিন সাজা।
কষ্টে যারা করে ভয় তারাই ভীরু নয় সুপুরুষ
কষ্টের সাথে দিন রাত্রি করি আমি কতোই আপোষ।
কষ্ট আপন কষ্ট ভালো আঁধার রাতে কষ্ট আলো
কষ্টে যতো আছো হেতা কষ্টের আগুন ঘরে জ্বালো।
চলতে ফিরতে রাস্তা ঘাটে কষ্ট থাকে আমার সাথে
ঘরে যখন ফিরে আসি কষ্ট দেখি খাবার পাতে।
অবাক আমি হই না তাতে কষ্ট আমার জীবন সখা
কষ্টে জীবন কাটাই আমি কষ্ট আমার ভাগ্য লেখা।
কষ্টে আছে যতো মানুষ আমার কাছে সবাই আসে
কষ্টে ভরা জীবন দেখে তারা ফিরে হেসে হেসে।
কষ্ট যেথায় যায় না কখন কষ্ট খেলা করে না
এমন জীবন নীরস জীবন আমার ভালো লাগে না।
কষ্ট আসে কষ্ট হাসে কষ্টের মাঝে আমার বাস
কষ্ট আমায় যায় না ছেড়ে কষ্ট থাকে বারো মাস।
কষ্ট আমার কষ্ট সবার কষ্ট আমার বিজ্ঞ জন
যখন তখন কষ্ট আসে কষ্ট আমার ভরায় মন।
কষ্ট আমার জীবন মরণ কষ্ট আমার সকল আশা
কষ্ট আমার মনের সুখ কষ্ট আমার ভালোবাসা।
কষ্ট আমার প্রাণপুরুষ করি তারে নমস্কার
কষ্ট আমার প্রণোদনা সেই তো আমার পুরষ্কার।
(নাট্যাভিনেতা জাহিদ হাসানকে)