হীরা আর চুন্নী
পাশাপাশি দুই বাড়ি
দু'জনেই সুন্নী।
প্রতিদিন দেখা হয়
মসজিদে পাঁচ বার
আর বাকী ক্ষণ দিনে
শুয়ে বসে কারবার।

রোজ তাই পথে পথে
দু'জনার দেখা হয়,
হাই হ্যালো ছাড়া আরও
কত কিছু কথা হয়।

তারপর একদিন...
বিশ্বকাপ এলো ঐ
হৈ চৈ দু'জনার...পুরাতন ফ্ল্যাগ কই!

দু'জনার ছাদে ওড়ে দু'দলের পতাকা
এইবার ঝগড়াটা
এনে দেবে ব্রাজুকা।

হীরা করে ব্রাজিল, চুন্নীর দল আর্জেন্টিনা
একের মন্তব্যে অন্যকে বলতেই হবে- "জ্বি না"।

দূর ব্রাজিলে খেলা হয়
আর তাদের মাঝেতে বিবাদ
মনে পড়ে বাংলার সেই
'বনের মোষ তাড়ানো' প্রবাদ।

নেইমার দিলে গোল
হীরাতো বেজায় খুশি
চুন্নী বলে ওফসাইট ওটা-
রেফারি ভুলে বাজায়নি বাঁশি।
আর মেসি ওদিকে দেয় গোল যখন
হীরা বলে ও ব্যাটা দাঁড়িয়েই থাকে,
খেলেটা যে কখন!

নেইমার আর মেসি তে গলাগলি ভাব
হীরা আর চুন্নীর মাঝে সে বোধের অভাব।

এই কবিতায় যেমন নেই কোন রম্য
নেইমার ও মেসির তুলনাও নয় কাম্য।

দু'জনেই ভালো খেলে
ভালো তো দুইটাই দল
অথচ মিছেমিছে তর্কে মাতে
হীরা আর চুন্নীর মত একদল খল।