জীবনের দুই-দশকাধিক সুবর্ণ সময়
পার করেছি এই নগরীর আলো-বাতাসে কোলাহলে, আনন্দ-উচ্ছ্বাসে
প্রেমে-বিরহে, অবারিত বন্ধুত্বে, নাগরিক আত্মীয়তায়
সময়ের উচ্ছলতম মুহুর্তগুলো গেঁথে আছে এই নগরীর সামগ্রিক ব্যাপকতায়
এ যেন আমার আত্মার অবিচ্ছেদ্য লোকালয়
অথচ পরমতম কষ্টে, নিবিড়তম যন্ত্রনায়, কঠোরতম প্রবঞ্চনায়, প্রকটতম দ্রোহে
আমাকে ছাড়তে হচ্ছে প্রানের নগরী, চলে যেতে হচ্ছে সবার অন্তরালে
এ যে কি দুঃসহ দহন তা প্রকাশযোগ্য নয়
আমারতো আকাশচুম্বী আকাংখা ছিলনা, ছিলনা বিত্ত বৈভবের প্রতি মোহ
শুধুই সাদামাটা এক সভ্য নাগরিক জীবন, অস্তিত্ব রক্ষার সামান্যই চাহিদা
আর সেখানেই ছিল সরলতার চরমতম ভুল
এখানে টিকতে হলে কৌশলী হতে হয়
তা পারিনি বলেই সব কুশীলবেরা সুকৌশলে আমাকে ক্রমাগত নিংড়ে শুষে নিয়েছে
তবে কাউকেই ছাড়বনা আমি
যারা আমার সরল আমিত্বকে তিলেতিলে অপব্যবহার করেছে, পদে পদে করেছে নিগ্রহ
এখন সাময়িক বিদায় বেলায়
তাদের ও তাদের কৃতকর্মের সমুদয় স্মৃতি গেঁথে নিয়ে যাচ্ছি অন্তরাত্মায়
এরপর সবার অগোচরে, নাগালের অনেক বাইরে
চলবে আমার চৌকস হতে চৌকস হবার নিবিড় আত্মপ্রশিক্ষণ
অতঃপর, বহুদিন আমাকে না দেখতে দেখতে যখন পিশাচেরা ভুলেই যাবে আমার চেহারা
অকস্মাৎ বজ্রের মত ঝলকানি হয়ে এসে ছারখার করে দেবো সব
কড়ায় গন্ডায় বুঝে নেবো আমার প্রাপ্য
আমার প্রানপ্রিয় ভন্ডেরা, সামান্য অভিশাপে বদলাবেনা তোমরা
অনাগত ভয়ালতম প্রতিশোধের হিংস্রতম আক্রমনের জন্য প্রস্তুত থাকো