প্রতীক্ষায় আছি খোলা রেখেছি জানালা
তুমি কোন ফাঁকে দেবে টোকা মৃদু পায়
কান পেতে থাকি ওই আশায় আশায়
হা করা দুয়ারে নাই অর্গল বা তালা

কখন শান্তির সাদা পায়রা সোল্লাসে
বাকুম বাকুম ডেকে খোলা বারান্দায়
দু দন্ড বসবে কী সকাল কী সন্ধ্যায়
বিড়ালের মতো ওত পাতি প্রতিশ্বাসে

প্রতীক্ষার রোদ গড়ায় বিকেলে এসে
ম্রিয়মাণ হয় আশার ধবল মেঘ
কালিমা ছড়ায়ে নামে শঙ্কিত উদ্বেগ
গাঢ় অন্ধকার চারপাশ ঘিরে শেষে।

এতো অন্ধকার তবু কী যে জ্বলে বুকে
আশা জাগানিয়া শিখা তার উর্ধমুখে ॥