আকাশে প্রচুর মেঘ ,বৃষ্টি হবে ভেবে বাসায় ফিওে এলাম। হঠাৎ দরজায় ঠক ঠক ঠক শব্দ। দরজা খুলতেই ডাক পিয়নের ভেজা হাতে বিয়ারিং চিঠিটা দেখে পৃিথবীর সব সুখ যেন মাটিতে লুটিয়ে পড়ার উপক্রম প্রায়। চিঠি এসেছে চিঠি...এই বলে হাকতে থাকেন ডাক পিয়ন। কার কিংবা কো'থেকে এসেছে তা সে জানে, আমিও জানি বৈকি। বিদেশি খামে মোড়ানো,সাদা খাম। তার সাথে যেন বিলাতি বিলাতি গন্ধটা খামটাকে কাচাঁগাদায় পরিনত করেছে। ততৰনে কিন্তুু ডাকপিয়ন তার কাজ টুকু সেরে আদবের সাথে ভো' দৌড়। পাশের ঘর হতে মা ডাকেন... খোকা... কে এলোরে? বলি... মা... দেখ মা তুমি না বলেছ! সে ভুলে যাবে। দেখ মা সে কিন্তু ভোলেনি বদলায়নি এতটুকুও। সে ভোলেনি তোমাকে ও। তুমিযে তাকে আদও করে বকাদিতে সেটি ও সে ভোলেনি। তোমার আমার আমাদের সবার কথা তার মনে পড়ে এখনো। হাজার ব্যাস্ততার মাঝেও আমাকে চিঠি লিখতে ভুলেনি। সবাই ভুলে যায় না। সবাই স্বার্থপর হয়না। বন্ধুর মত বন্ধু হলে সুখে দুখে সবাইকে মনে রাখে। সে যেখানে যাকনা কেন। বন্ধু কোন দিন সার্থপর হয় না। --------সোহান