ঘরে ঘরে সরব পরিবার
আমার আছে কই!
অবশ মনে প্রান্তরে শুয়ে
শূন্যে তাকিয়ে রই।

গোয়াল ভরা ছিল গরু
পুকুর ভর্তি ছোট বড় মাছ,
উঠান জুড়ে ধান শুকাতো
নির্ভাবনায় কাটত বার মাস।

কাঁধে চড়ে বসতো রহিম
হাটে গিয়ে কিনবে ঢাল তরোয়াল,
আমিনা ধরে রাখতো আঙুল
চাই আলতা শাড়ী চুড়ি টুকটুকে লাল।

কই গো গেলে কোথায়?
তোমার কী লাগবে বলো!
মিষ্টি হেসে বলতো সখিনা
একটাই চাওয়া তোমরা থাক ভালো।

হঠাত করে দিগন্ত হলো কালো
ঘূর্ণি হাওয়া আসলো ধেয়ে!
পলকেই তুলা যেন উড়ে গেলো
ঘর ঘরণী বুকের মানিক ছেলে মেয়ে।