রাজু ''কি রে কেমন আছিস?''
প্রথম ''মনে হয় না ভালো ''
রাজু '' কেন রে, কি হইছে?';'
প্রথম '' ভালো থাকব কি করে, সেই কবে গেলি দেশ ছেড়ে তারপর থেকে আজ অবদি একটু খবর ও নিলি না,ভালো থাকি কি করে তুই ই বল ''
রাজু '' আহ ,ভুল হয়ে গেছে,মাফ করে দে,এখন থেকে আছি, তারপর কি অবস্তা? কেমন আছিস? বাসার সবাই কেমন আছে?''
প্রথম '' হুম, সবাই ভালো, তরা সবাই কেমন আছিস?''
রাজু ''ভালো,শোন কথাও যাবিনা আমি আসছি একটু পর......'' বলেই দরজা ভিজিয়ে বের হয়ে গেল রাজু.


প্রথম তার মাকে বলল ''মা, মা, যেন আজ রাজুর সাথে কথা হয়েছে . ''
মা '' তাই নাকি, কিভাবে? ও কি ফোন করেছিল নাকি তদের কি সব ফেসবুক না কি ওখানে ?''
প্রথম '' আররে নাহ , ওসব কোথাও না, ও এসেছিল আজ ,আমার রুম এ ''
প্রথমের মা বুঝতে পারে ও হয়তো সপ্ন দেখেছে, তাই আর কিছু বলল না.
প্রথম '' মা যেন, ও তোমাদের খবর নিয়েছে. তোমাদের সালাম দিয়েছে.''
মা '' ও আচ্ছা......''


পরদিন বিকেল বেলা প্রথম সবে ঘুম থেকে উঠলো, পাশ ফিরতেই দেখে রাজু বসে আছে তার সামনে ,
রাজু ''কি রে এতক্ষণে তর ঘুম ভাঙলো , সেই কবে থেকে বসে আছি, উঠ বেটা আর কতক্ষণ ঘুমাবি''
প্রথম ''ওহ , কাল হটাত চলে গেলি যে ?''
রাজু ''আরে কাজ ছিল তাই,আজ ও একটু পরে চলে যাব''
প্রথম ''তাহলে আসলি কেনো? যা ফুট ''
রাজু '' খুব দেখতে ইচ্ছে করলো তোকে তাই চলে এলাম ''
প্রথম ''ও......'' [ঘুমের ঘোর এখনো কাটেনি প্রথমের ] '' তা দিনকাল কেমন কাটছে?''
রাজু '' ভালো মনে হয়''
'' ভালো আবার মনে হয় কেমন, কোথায় এখনো রহসস রাখিস কেনো? ''
''আচ্ছা আর রাখবোনা, তোর কেমন কাটছে? ''
''ভালই কাটছে, ইদানিং খুব ভালো, তোকে পেলাম তাই ,''
''আচ্ছা তাই নাকি, ওকে আমি তাহলে এখন থেকে সব সময় এসব,খুব মিস করেছিস আমাকে তাই না ?''
''হুম, খুব...............''
বলেই প্রথম রাজু কে জড়িয়ে ধরল,প্রথমের মনে যেন প্রশান্তির বাতাস বইতে লাগলো, এতদিন পর পুরানো বন্ধুকে পেল.
রাজু '' আচ্ছা প্রথম সন্ধার আগে বাসায় যেতে হবে এখন উঠি, আর আজ তুই খুব ঘুমিয়েছিস তাই বেশিক্ষণ থাকতে পারলাম না,দেখ বাইরে সন্ধা ঘনিয়ে আসছে, উঠে পর.. বলে রাজু চলে গেল.


রাতে হঠাত তিনটা হাত আবিস্কার করলো,পিছন ফিরে তাকাতেই দেখতে পেলো তার কাজিনদের,এরা প্রথমের খুব আপন মানুষ,বোন,বন্ধু সব, চত থেকেই একসাথে বড় হয়েছে.
- কি রে তরা কবে এলি?
- এই মাত্র
- হঠাত
- তোকে দেখতে মন চাইলো তাই চলে আসলাম, কেনো আসতে অনুমতি লাগবে নাকি?
- না আমি তা বুলাম নাকি,তরা তো আসতেই পারিস,কিন্তু আমাকে কি সবার একসাথে মনে পড়ল নাকি?
- কেনো বলত কি হয়েছে?
- না রাজু আসছিল তাই
- রাজু, কোন রাজু ?ঐ যে লন্ডন চলে গিয়েছে ঐ রাজু ?
- হে হে সেই রাজু, তোদের মনে আছে তাহলে, কাল আবার আসবে চল খেতে চল, খিদে পেয়েছে.
- তুই যা আমরা হাতমুখ ধুযে আসছি.
- আচ্ছা


এবার যেন ফাস হতে লাগলো সম্পূর্ণ বেপারটা, রাতে খাবার সময় ডাইনিং টেবিলের আরো তিনটে চিয়ার বের করলো প্রথম.
মা '' কি রে ওগুলো বের করছিস কেনো?''
প্রথম '' কেনো আজ না বাসায় কাজিনরা আসছে,ওরা ও তো খাবে তাই,ওরা হাতমুখ ধুতে গেছে''
মা '' ও তাই নাকি আচ্ছা'' মা বুজতে পারল যে তার ছেলের কিছু হয়েছে,তাই তিনি আর কিছু বলল না.


রাতে ঘুমানোর জন্য রুম এ এলো প্রথম, লাইট নিভাতে যাবে এমন সময় শুনতে পেলো
- কি রে, ঘুমাবি নাকি,গপ্ল্প করবিনা ,ডিম্ব লাইট তা জেলে আয় বোস,এতদিন পর আসলাম আর তুই ঘুমাবি কি সুন্দর কথা,একদম মেরে আলু ভর্তা বানাবো........
পিছন ফিরে তাকাতে দেখলো তার বোনরা বিছানায় বসে আছে প্রথম বলল ''তো সেটা সুন্দর করে বল,এমন ভাবে বলছিস যেন আমার জাত গেলো''
পরে প্রথম তাদের সাথে রাতের অর্ধেক সময় ধরে আড্ডা মেরে ঘুমিয়ে পরে.

এভাবে দিনের পর দিন যেতে থাকে, কল্পনায় যে এসব কান্ড করছে সেটাও বুঝতে পারে প্রতমের মা কিন্তু তাকে এ নিয়ে তেমন বোকাঝকা করেনি,
তবে প্রথমের এসব ব্যাপার আর কমেনা, দিন দিন আরো বাড়তে থাকে যেন . আর প্রথমের জন্য যেন ভালোই হলো সে এখন আর একা থাকেনা তার অনেক বন্ধু এখন, হারিয়ে যাওয়া পুরাতন নতুন,সবার সাথে আড্ডা দিতে দিতে তার দিন খুব বাস্ত সময় আর খুব ভালই কাটে.
বন্ধুর মত এমন একটা জিনিস যেন দুনিয়াতে আর অন্য একটা নেই যেন প্রথমের কাছে.
এভাবেই কল্পনাতে কথা বলে আড্ডা মারে সে, সময়ের পর সময় মুহুর্তের পর মুহূর্ত কাটিয়ে দেয় কল্পনায় আড্ডা মারে ,হাসাহাসি করে,দুষ্টমি করে,সব ই করে নিজের ঘরে তাই এটা কেও নোটিশ করতে পারে না আর প্রথম এই নতুন শহরে নতুন আর একা থাকতে খুব পছন্দ করে,আর তা মা বুঝতে পারে তার ছেলে বর্তমান থেকে কল্পনাকে খুব ভালবাসে. আর আবার মাঝে মাঝে রাজুর মত পুরাতন হারিয়ে যাওয়া ধুলো জমে যাওয়া বন্ধুরা গা ঝেড়ে আসে তখন প্রথম খবর নেয় বন্ধুদের '' কি রে কেমন আছিস ? ''