বাংলাদেশের সমসাময়িক সমস্যাবলী নিয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে লিখেছি । আমি বঙ্গমাতা শব্দটা ব্যাবহার করেছি। আর বর্তমানে বাংলাদেশের কিছু মানুষ দেশ কে ক্ষতি করতে পিছুপা হচ্ছে না তাই আমি মাতা শব্দটা ব্যাবহার করেছি যাহাতে হয়ত দেশটা কিছুটা রক্ষা পাবে। কারন মা বিষয়ে আমরা সব করতে পারি।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৫ জুন ১৯৮৭
গল্প/কবিতা: ১টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - বাংলাদেশ (ডিসেম্বর ২০১৯)

বঙ্গমাতা
বাংলাদেশ

সংখ্যা

Monirul Haque

comment ৬  favorite ০  import_contacts ৬৮

হে আমার বঙ্গমাতা,
তোমার বুকের ফসলের মাঠে
স্নিগ্ধ বাতাস আর খেলা করেনা।
সন্ধার বাঁশঝাড়ে ঝাঁকবেধে শালিকেরা
কিচির মিচির আর ডাকে না।
তবে মধ্যরাতে হঠাৎই কিছু শিয়ালের হাক
এখনো শোনা যায়।
যদিও তাদের গলায় ফুটে উঠে আজ
শুধুই সকরুণ আর্তনাদের স্থবিরতা।
পিশাচদের ধারালো ছুরির হিংস্রতায়
তাদের হ্রদপৃন্ডে ফুটে উঠে বীভৎসতা।
হে আমার বঙ্গমাতা।

তোমার দেশের কৃষ্ণচুড়ার কচি কচি
ডাল ভেঙ্গে আজ জঙ্গিরা করছে যাচ্ছেতাই।
পলাশ ফুলেরা আজ বোমার আঘাতে
ঝুরঝুর করে ঝড়ে পড়ছে পিচঢালা রাস্তায়।
ওরা তোমার সবুজ শাড়ির সাথে
লাল রঙের টিপ পড়তে দিবে না।

ভয় নেই মা, রাস্তায় ঝড়ে যাওয়া
বুকের তাজা রক্ত দিয়ে
তোমার কপালে পড়িয়ে দিব,
লালটিপ।
প্রতিদিন।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement