আমার লেখা "শীতের বাণী" কবিতাটি উল্লেখিত বিষয়ের সাথে সম্পূর্ণ সামঞ্জস্যপূর্ন। কবিতাটিতে গরীব এবং অসহায় মানুষেদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য, বিশেষ করে শীতের মৌসুমে খাদ্য-বস্ত্র দিয়ে তাদেরকে সাহায্য করার জন্য সকলকে অনুপ্রাণিত করা হয়েছে।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৮ অক্টোবর ২০২০
গল্প/কবিতা: ৪টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - শীত (জানুয়ারী ২০২০)

শীতের বাণী
শীত

সংখ্যা

মোট ভোট

Md. Abdul Ahad Khan

comment ৪  favorite ০  import_contacts ১২২
হিম হিম লাগে বাতাসখানি
আর পুকুরের পানি
শীত বুঝি তবে এসেছে
আবার এনেছে নববাণী।

প্রকৃতি হয়েছে স্তব্ধ খানিক
শীতের প্রবল তেজে
বলতে চায় তবু একটা কিছু
এ নীরবতারই মাঝে।

খেজুর রসে আমি যখন
ভরি আমার হাড়ি
মিনতি করে সে আমাকে
নিয়ে যাব আমি তাকে
আর্ত ও ক্ষুধার্তদের বাড়ি।

প্রবল শীতে, মাঝ নিশিতে
চাদর দিয়ে নিজেকে আমি ঢাকি
চাদর যেন বলছে আমায়
চুপি চুপি ক্ষীণ গলায়
''একটি কথা, তোমাকে বলা আছে যে বাকি''।

চাদর বলে, "শোনো হে ছেলে!
তুমি তো আদরে, উষ্ণ চাদরে
আরামের মাঝে রবে
পথের ধারের ঐ বস্ত্রছাড়া
শিশুটির কি হবে"?

"শীত মানে তো নয়
একা শীতের পিঠা খাওয়া
শুধু নিজের স্বার্থ ভেবে
অন্যকে ভুলে যাওয়া"।

তখন আমি গেলাম বুঝে
শীতের আসল মানে
ধনী-গরীব মোরা মিলাব সুর
একই সুরের গানে।

সবার সাথে থাকবো মিলে,
ফুটবে তবে স্বর্গ-পুষ্প ঝিলে
ভাগ করে নেব খুশি
আর থাকবে না আড়ি
শীতের এ বাণী পৌঁছে দিব
সব মানুষের বাড়ি।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement