ভয়ে মানুষ কে ভীতি প্রদর্শন করে নির্ভয়ে বলি এটি সামঞ্জস্য পূর্ণ । যথাযথ ।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২০ সেপ্টেম্বর ১৯৯৬
গল্প/কবিতা: ২টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - ভয় (ডিসেম্বর ২০১৮)

ভয়
ভয়

সংখ্যা

মোঃ মুসা ইসলাম

comment ১  favorite ০  import_contacts ১৬
হৃদপিন্ডটি কেঁপেই ওঠা থরথর কম্পন
সৃষ্টি হয় এক! সংশয়,
ভয় মানুষের এমন জিনিস দেহ ভাঙা
ক্ষতোর বিরাট অংশয়।

কথায় কথায় বলে সবায় কিসের এতো
চিন্তে মগজ ভয়,
এইবার মোরা আনব কুঁড়ে ভয় থেকে যার
নিশ্চয় মোরা জয়।

ছোট্ট বেলা গল্প শুনতাম মামার কাছে
ভুত পেতনির কিসসা,
ডরে আমার কলিজা কাপতো থুথুনি দেই
বুকের উপর খিসসা।
শিশু কলে ভয় পেতাম যে ভুত পেতনির
কালো দানব আচার,
এখন আমি বড় হয়ে ভয় পাই খালি
মানব জাতির আচার।

বনের বাঘে খায়না মানুষ তবে মনের
বাঘে মানুষ খায়,
বাঘের ভয়ে যেপথ ছাড়ে সে বাঘ এসে
পথ দাড়িয়ে যায়।

অস্বাভাবিক আমার সবাই ভয় পাই থাকি
স্বাভাবিক কে মিতা,
সীমার বাঁধা ভঙ্গন কারী নয়রে প্রভুর
নয়রে আদম পিতা।

স্বার্থের লাগি অমিল করে বন্ধু সুলভ
চলার ধারে বিরল,
সকলে সকলে একসাথ মিলে যদি
করি একতা বলে সবল।

আমাদের নেই ভয় ডর তবেই
চলার ভয়ে থাকার ভয়ে বিমুখ,
সমাজ চলবে আপন গতিত
লাগবেনা তেল মবিল ঘুষে প্রমুখ।

আজকের সমাজ দেখি অনেকে
হাজার ভয়ের দরজা খুলে আছি,
সত্য বলতে মিথ্যা ভয়ের
সত্য মিথ্যা মাঝে নিজেই মিছি।

জ্বালা পোড়া সংসার কুলে
হাজার রটে মিথ্যে কথার আশ্রয়
জানা আছে তাহার পরে
নামবে আমার একি রকম নির্দয়।

আজকের সমাজ চলতে গিয়ে
মেয়েদের পথ ঘটে হাজার বাঁধায়
ভয় পেয়ে বয় স্কুল পথেটি যদি
পিছলে যায়রে নোংরা কাদায়।

ভয় আমাদের সংশয় কেটে
এগু যেতে হবে বহুদুর,
সমানে সকাল ভোরের আলো
আসছে ছিরে রাতারাতি সুর।

আমরা নতুন তরুণ প্রবীণ কিসের
মোদের পথের কাঁটা,
আমারা অটল মহা বীর বল
জয় হাতছানির গেছে বিঘ্নর ছাটা।
ভয়ের সদা কাজ যারেই লাজ,
আসতে থাকবে বাড়বে আরো ভয়,
না যদি ডর কিসের বিচ্চু সাপ ঘর
ছুইতে পারি সহজতর।







advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement