যে জন আমায় আগলিয়ে রাখে
জীবনের সব আঁকা-বাঁকা পথে
ঝড়-ঝঞ্ঝাট হোক না যতই,
আশ্রয় তার কোলে...
তাহাকেই মা বলে।

যদি বা করি আমি অপরাধ
তার কাছে মোর সাত খুন মাফ
যতবার পড়ি মাটিতে আমি,
হাত ধরে ফের তোলে...
তাহাকেই মা বলে।

যে জন আমায় আলোকিত করে
তিল তিল করে;নিজ হাতে গড়ে
যখন হারাই অন্ধকারে,
ধিকি ধিকি বাতি জ্বালে..
তাহাকেই মা বলে।

জরা-জীর্ণ,ছেড়া শাড়ি পড়ে
আমাকে রাখে সে পরম আদরে
শান্তির ঘুম আসে কেবলি,
যাহার আচল তলে...
তাহাকেই মা বলে।

নিজে না খেয়ে ভালো বা মন্দ
আমারে খাওয়ায়ে কত আনন্দ
তাহার পাতের শেষ নলা দেয়,
আমার মুখে তুলে...
তাহাকেই মা বলে।

ধরে রাখে মোর আঙুল খানি
হারানোর ভয়;মনে এতখানি
আমি যে কতটা বড় হয়ে গেছি,
বেমালুম যায় ভুলে...
তাহাকেই মা বলে।

যেখানেই যাই; যত দেশ ঘুরি
বেলাশেষে যেনো তার কাছে ফিরি
মনটা কেমন করে আনচান,
চোখের আড়াল হলে...
তাহাকেই মা বলে।

নিজে হেরে যাবে বার বার তবু
আমাকে হারতে দেবে না সে কভু
সারা পৃথিবীর ভালোবাসা দিয়ে,
বেঁধেছে মায়ার জালে...
তাহাকেই মা বলে।