এবারের কবিতার বিষয় কষ্ট। আমার 'অষ্টপ্রহরের কষ্টগুলো' কবিতাটিতে সেসব কষ্টের কথা ফুটে উঠেছে যেগুলো আমরা নিজেদের মাঝে লুকিয়ে রাখি। যা কেউ দেখে না, কেউ বোঝে না। প্রিয় মানুষটিকে তাই কষ্টের কথা বলা হয়েছে। কেউ না জানুক, সে তো জানে। কষ্টগুলো যে একান্ত আমাদের।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২১ ডিসেম্বর ১৯৯৪
গল্প/কবিতা: ৭টি

সমন্বিত স্কোর

৩.৪২

বিচারক স্কোরঃ ১.১৭ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ২.২৫ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - কষ্ট (জানুয়ারী ২০১৯)

অষ্টপ্রহরের কষ্টগুলো
কষ্ট

সংখ্যা

মোট ভোট ১৫ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৩.৪২

সালসাবিলা নকি

comment ১১  favorite ০  import_contacts ২৩২
আমাদের কষ্টগুলো রোজ ইট-পাথরের প্রাচীরে চাপা পড়ে যায়,
কেউ দেখে না,
ক্রমশ এগুলো বাড়তে থাকে,
এই শহরের কেউ জানে না তা,
ভাবে, বেশ ভালোই আছি আমরা।

যদি ওদের জানাতে যাই,
তোমার কষ্টগুলো উচ্চতায় হিমালয়ের সাথে
প্রতিযোগিতায় নেমেছে,
বিশ্বাস করো, কেউই বিশ্বাস করবেনা ৷

যদি বলি,
আমার চোখের অশ্রু নিয়েই একটা দুঃখ নদী,
ঠোঁটের হাসিতে লুকিয়ে থাকে কঠিন ব্যথা,
ভাববে সবাই, বাড়িয়ে বলাতে আমার তুলনা হয় না।


কিন্তু তুমি তো জানো,
কী ভীষণ জ্বালা মনের মাঝে পুষে রাখি,
চোখের তারায় লুকাই বেদনা।
বুকপকেটে ক্ষোভ রেখে হাসতে পারো তুমিও।
চোখের দেখায় কেউ বুঝতে পারে না তা।


দিনশেষে কিছু অভাববোধ,
কিছু পেয়ে হারানোর যন্ত্রণা,
আর বিষন্নতাকে দিতে থাকি প্রশ্রয়।
কেউ না জানুক,
তুমি তো জানো আর আমিও জানি,
অষ্টপ্রহরের কষ্টগুলো
রোজ কীভাবে আমাদের পোড়ায়!

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement