রাত্রি নিশিতে দূর আকাশের প্রাণহীন তারা,
বিশাখার নক্ষত্র তুমি? অমন নিথর, অধরা!
শত আলোকবর্ষ দূর থেকে, ওহে দীর্ঘজীবী!
মিটিমিটি অণুলণ্ঠন শত, পতঙ্গ ক্ষণজীবী,
দেখ কিনা এই দূরদেশে? মাঠের বুকে তারা,
শীতনিদ্রা সাঙ্গ করে এসে বসন্তে দিশেহারা।
প্রেমের রসায়ন হৃদয়ে; পুচ্ছে জ্বেলে আলো
নিশাচর জোনাক খোঁজে- কে তারে বাসে ভাল!
ইট-পাথরে বর্ণিল রজনী, জন-কোলাহল ছাড়ি;
নির্জনে জোনাকির তালাশ-কোথায় যে তার বাড়ি!
প্রেমময়ী দেবে কি তাহার স্বপ্রভ ডাকে সাড়া?
প্রেমের অমিয় সুধায় হবে কিগো আত্মহারা?
জলের ধারে ঝোপে-ঝাড়ে বসতি গড়ে দিবে,
এসকারগোট তুলে দিবে পাতে, মন পুরে খাবে।
বাঁধবে প্রেমের শতধা সুর, জেগে নিশি রাত্রি
বিলাবে স্নিগ্ধ নেশার পিদিম, আঁধারের সহযাত্রী!