লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৭ ফেব্রুয়ারী ১৯৭৯
গল্প/কবিতা: ৪টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

১৬

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - রমণী (ফেব্রুয়ারী ২০১৮)

দ্রোহে-অস্তিত্তে-জাগরণে
রমণী

সংখ্যা

মোট ভোট ১৬

অনিন্দ্য রহমান

comment ১১  favorite ০  import_contacts ২৪০
শ্যাউলাধরা পুরনো গোরস্থানে তোমার প্রিয় এপিটাফ টা-
করেছো বক্ষে ধারণ যেন ইহলোকের দেহত্যাগে-
শরীরী আত্মার পুরোটা জুড়ে শতাব্দীর পর শতাব্দী।
টী- শার্ট ,কফির পেয়ালা, পুরনো কবিতা কিংবা সিগারেটের এশট্রে-তে,
রেখে যাওয়া স্পর্শগুলো কেবলি এখন মরীচিকা ।
এ যেন নিতান্তই ওয়াটার লিলির জলহীন জলজ খেলা ,
কিংবা চন্দ্রালোকিত রাত্রিতে ম্যাগনোলিয়ার নিষ্প্রভ সুগন্ধি ছুঁয়া,
অথবা অস্তিত্তের দোলাচলে মৃত্তিকাহীন শিকড় আঁকড়ে ধরা ।

জেগে উঠো যাযাবর দুঃস্বপ্নে,
মিশে যাও শিকল ভাঙ্গা ক্রীতদাসের হাসিতে-
আকাশ ভেদিয়া সীমাহীন ঊর্ধ্বলোকে ।
জেগে উঠো ভিয়েনার তারা জ্বলা রাত্রিতে,
এথেন্সের কফি শপে-কফির পেয়ালায় চুমুকে চুমুকে,
কিংবা বিকশিত দেহের আলোড়িত নিউরনের প্রতিটি অনুরনে ।
জেগে উঠো সিম্ফনিক কম্পনে ,আগুন লাগা ফাগুনের মিছিলে ,
নয়তো জনস্রোতের দ্রোহের আগুনে বার বার প্রতিবার ।
জেগে উঠো বোহেমিয়ানদের মত-
ঘুরে ফেরা ছন্নছাড়াদের এক মুঠো সম্বলে,
জেগে উঠো অপলক লাবণ্য আর অনিন্দ্য স্পর্শে,
শত স্মৃতির কিংখাবে ।
জেগে উঠো সখিনাদের টানা-পোড়নের সংসারে,
চির বিপ্লবীর চির প্রত্যয়ে -
ব্রাজাস্টাইন সম্রাজ্ঞীর মত চির অভিজাত্তে,
যেন রমণীর মত রমণী হয়ে -
কোমলতার কিংবদন্তিতে ।।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement