ভালোবাসার নগ্ন হাতের দর্শণ গ্রাহে,
শিউড়ে ওঠে রুদ্ধ বিবেক আমার।
নিমজ্জিত জলরাশির হেম কণিকায় ডুবন্ত পর্বত,
যেন রুদ্রমূর্তি ঠাড় সম্মুখে আজ।
নাগিনীর সুখনাশক প্রমোদ তরীতে উল্কার উদ্বেগ অস্তে,
দগ্ধপুরীর নিক্বণ স্বনে,উল্লাসে মত্ত অন্য ক্ষন,অন্য জন!
হাঁক ছেড়ে আজ মানস প্রান্ত মেলেছে পাখা,
আমি ছিড়ে ফুঁড়ে খাই মতি ফল,পচা শামুকের পেট চিরে,
আমি লোনা জলের শুঁটকি আজ নিভৃতের রোদনপুরে।
উনুনের জ্বালে ছিটকে ওঠে তনুর তৈলচিত্র,কষ্ট আমার,
বিশ্বাস ভেঙে সর্প হয়েছো বলেই,দংশন দানে নষ্ট হয়েছি আবার।
তাই কষ্ট প্রদীপ আমি আলো হয়ে জ্বলি নষ্ট আঁধারে,
ছলনার জলে পেট পুরেছি,সাঁতার কাটছি কষ্ট পাথারে।