প্রতিরাতে যখন বিছানায় শুতে যাই,গা টা ছমছম করে উঠে
প্রতিরাতে শুনি তার পদশব্দ,ভয়ে শরীরে কাটা দিয়ে উঠে।

প্রতিরাতে সে আসে,শুকনো মচমচে পাতা
মড়মড় করে মাড়িয়ে।

তার হাটার শব্দ যেন,ঘন্টা বাজায় আমার হৃদয়ে
"সে কী অশরীরী?"-ভাবতেই ঠান্ডা স্রোত বয়,শিরদাঁড়া বেয়ে।

প্রতিরাতে আমার সাথে ঘুমুতে হয় মাকে,
তার পদশব্দ শুনা যায়না যদি সঙ্গে মা থাকে!

অতি সাহস করে আজ একা থাকব,
মাকে বলেছি-"প্রয়োজনে ডাকব।"কক

আজ রাতেও শুনছি তার পদশব্দ।
শুকনো পাতা মড়মড় করে
ভেঙে যাওয়ার শব্দ,তার হাটার শব্দ।

সে আসছে আমার রুমের দিকেই!
দৌড়ে গিয়ে খুলে দিলাম দরজাটা,
অন্ধকারে দেখা গেল তার আবছা ছায়ামূর্তিটা।

তার হাটা বন্ধ হয়নি,এখনো সম্পূর্ণ দেখতে পায়নি তারে,
হঠাৎ চিতকার করে বলি,
"কে?কে আসে অন্ধকারে?"