বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।
Photo
জন্মদিন: ২৯ মার্চ ১৯৮১

keyboard_arrow_leftসাহিত্য ব্লগ

মনি হায়দারের উপন্যাস ‘নায়ক ও নায়িকারা’ এবং পাঠ প্রতিক্রিয়া

তির্থক আহসান রুবেল

  • advertisement

    মনি হায়দারের উপন্যাস ‘নায়ক ও নায়িকারা’ এবং পাঠ প্রতিক্রিয়া শিরোনামে মামুন ম. আজিজ ভাই যে লেখাটা লিখেছিলেন সেটাতে আমার লেখা কমেন্টে একটা ভুল তথ্য দিয়েছিলাম অজান্তে বা ভুল বশত। আসলে সেখানে রেফারেন্স দেয়া কষ্ট সংখ্যার আমার গল্পটার নাম ছিল 'মেয়ে, তোমার মন খারাপ কেন?' আপনারা যারা সে সময় আমাকে চিনতেন না, তারা আজ আমায় চেনেন। আমার অনেক লেখা পড়েছেন ইতিমধ্যে। এখন আপনারা সেই গল্পটা আরেকবার পড়বেন প্লিজ। লিঙ্ক হচ্ছে:   কম

    http://www.golpokobita.com/golpokobita/article/272/1722

advertisement

  • ড. জায়েদ বিন জাকির শাওন
    ড. জায়েদ বিন জাকির শাওন এই কথা ব্লগে দেবার মানে কি ভাই? এটাত আপনি আড্ডাতেই দিতে পারতেন. আর এই caption কেন? এটা তো আপনার লেখা না! কিছু মনে করবেন না আমার মন্তব্যে!
    প্রত্যুত্তর . ৮ মার্চ, ২০১২
    • তির্থক আহসান রুবেল বস, আসলে মামুন ভাই'র লেখায় আমি ভুল করেছিলাম তো তাই সেই টাইটেলটা দিলাম, যাতে্আপনাদের মনে পড়ে.... এজন্য.....
      ৯ মার্চ, ২০১২
    • ড. জায়েদ বিন জাকির শাওন আড্ডাতে দিলেই হত! নাহলে মামুন ভাই এর ব্লগে!
      ৯ মার্চ, ২০১২
    • তির্থক আহসান রুবেল ভাই, আড্ডায় এত বেশী পোষ্ট আসে যে, সেটা হারিয়ে যেত চোখের পলকে..... কিন্তু ব্লগে কিছুটা সময় বেশী স্থায়ী থাকে চোখের সামনে.... তাই দিয়েছি.....
      ১০ মার্চ, ২০১২
  • দিগন্ত রেখা
    দিগন্ত রেখা নিজের লিখা নিয়া এতা ক্যানভাস করার দরকার কী? মহাভারত লিখে ফেলেছেন নাকি বন্ধু?
    প্রত্যুত্তর . ৯ মার্চ, ২০১২
    • তির্থক আহসান রুবেল আসলে ঐ লেখা পড়ে যে কমেন্টগুলো দিয়েছিল সম্মানীত পাঠকেরা.... সেট ্আমার জন্য ছিল ভয়াবহ অভিজ্ঞতা.... কারণ আমি কোনভাবেই সেদিন প্রেক্ষাপট বোঝাতে পারিনি....
      ১০ মার্চ, ২০১২
    • স্বর্ণলতা একজন লেখক যখন লেখালেখাতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়, তখন সে এধরনের কিছু সস্তা লেখা লিখে ফেলে। কারণ তার ভিতর শৈল্পিকতাবোধ টা আর থাকেনা। আর শৈল্পিকতাবোধ থাকেনা বলেই তার দ্বারা আর লেখালেখি সম্ভব হয়না। কারন সাহিত্য চর্চাটা পুরোটাই শৈল্পিক বিষয়। পৃথিবীতে এমন একজন সফল লেখকও নেই যাদের সাহিত্যে সেক্সুয়াল বিষয়টা এত নগ্নভাবে এসেছে। যাদের এসেছে তারা অব্যশ্যই ব্যর্থ। গল্পের প্রয়োজনে এসেছে, চরিত্রের প্রয়োজনে এসেছে, ঘটনা ১০০% সত্য, এই সব সস্তা সেন্টিমেন্টের কোন দাম নেই সাহিত্যে। এই সব কথা বলে যারা তাদের ব্যর্থতা ঢাকতে চায়, তাদের লেখালেখির আগে ব্যপক পড়াশোনা দরকার।
      ১০ মার্চ, ২০১২
  • স্বর্ণলতা
    স্বর্ণলতা একজন লেখক যখন লেখালেখাতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়, তখন সে এধরনের কিছু সস্তা লেখা লিখে ফেলে। কারণ তার ভিতর শৈল্পিকতাবোধ টা আর থাকেনা। আর শৈল্পিকতাবোধ থাকেনা বলেই তার দ্বারা আর লেখালেখি সম্ভব হয়না। কারন সাহিত্য চর্চাটা পুরোটাই শৈল্পিক বিষয়। পৃথিবীতে এমন একজন ...  আরও দেখুন
    প্রত্যুত্তর . ১০ মার্চ, ২০১২
    • তির্থক আহসান রুবেল কিন্তু একটা ব্যপার তো বুঝতে হবে.... যেমন, আমার গল্পে ডায়লগগুলো ছিল চরিত্রের.... তার সাথে যদি কেউ ব্যক্তি আমাকে জড়াতে চায় তবে সেটা আমি মানবো না। আমার গল্পে আমি কতগুলো সাইকো কে একত্রিত করেছিলাম। আমি যেমন বস্তির কথাবার্তায় প্রমিত ভাষা দিতে পারবো না বিশেষ কারণ ছাড়া.... এখানেও তা-ই। তবে আপনার কমেন্টটা কি আমার গল্পটা নিয়ে, নাকি এখানে লেখা আমার কমেন্ট নিয়ে ক্লিয়ার হলাম না....
      ১১ মার্চ, ২০১২