কোথাও নেই আমি! নেই কোনো আমার ছায়া!

আমার প্রতিবিম্ব নেই তোমার অদৃশ্য দর্পণে:

চোখের গোলকে, স্বপ্নের ডানায় কিংবা

নীড়েফেরা পাখির কুজনে,

সন্ধ্যার কবোষ্ণ চাদরে –

কোথাও রাখোনি চিহ্ন আমার

কোথাও নেই কোন মুহুর্তের মুরতি।

 

রাখোনি ধরে ওম চৈতন্যের ঘোরে

অভীস্পা থাকেনি মোটে মগ্নমদির বোধে

আমার অস্থিত্ব নেই পিয়াসী পেয়ালায় তোমার;

রঙের বিভাস মুছে দিয়েছ জলে।

 

কোথাও রাখোনি পুরে উষ্ণশ্বাস মোর

রাখোনি নীলখামে অপেক্ষার কাল

ঝেড়েছ আঁচল থেকে অমৃত কণা

ঊষার প্রণয়প্রহর রাখোনি এঁকে পটে

রাখোনি গোধুলি ধরে সফেদ রুমালে

ধুয়েছ ললাট থেকে আবীরের হাসি।

 

খুঁজেছি নিজেকে তোমার কুঞ্জে কাননে

অঝোর শ্রাবণে, বসন্তবেহাগে কত!

নেই মোটে কেশরকেশে কিংবা গ্রীবায়

নেই হেথাহোথা কান্নায় আদরে।

 

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮