সৃষ্টি জীবন ধণ্য! রক্ত চঞ্চল তুমি
নোনা ঘাম পাহাড়ের ঝর্ণাও তুমি
বটবৃক্ষের মত রোজ পেয়েছি ছাউনি;
তুমি ঐ আউশ ধানের গন্ধ বিলাস
অন্নজল নবান্ন দিনের আনন্দ উল্লাস।

শত পরিশ্রমের অন্ধফল গো আমি
যৌবনবেলা চিনলাম শুধু আমার আমি;
জ্ঞান দাও বোধ দাও প্রভু জানাই আরতি
আমি উর্বর ভূমির নষ্ট অবাধ্য ফসল
তোমার ভালোবাসা নিত্যই করেছি বিফল।

বাবার চরণ ধুলি হয় জানি স্বর্গময়
সকল সাধ সাধ্য সাধাণ করো পূর্ণবল
বুঝলাম না বাবা তোমার আরোধ্যময়;
দিয়ে দিও মোর স্বর্গ প্রভু!পিতারো গায়,
আমার স্বর্গময় ত্রিভুবন বাবরো পায়।