দেখা হলে চোখে ঝিলিক ছিল
হাসি-খুশি আর আনন্দ ছিল
পাশাপাশি বহু পথ হাঁটা ছিল
তবে সবশেষে ছিল শূন্য।

দু’চোখে কাজল মাখামাখি ছিল
তারি সাথে স্বপন আঁকাআঁকি ছিল
খানিকটা ঘোর? তা-ও বুঝি ছিল
তবু সবশেষে ছিল শূন্য।

উষ্ণ হাতের পরশ ছিল
তার অশ্রু? সেটি তপ্ত ছিল
রুমালে “ভালোবাসি” সে-ও লেখা ছিল
শেষকালে ছিল শূন্য।

অক্লান্ত প্রেম-নয়ন ছিল
সতৃষ্ণ চোখের দৃষ্টি ছিল
পবিত্রতা স্নিগ্ধতা ছিল
কিন্তু ... ... সবশেষে ছিল শূন্য।

কত রজনী জেগে থাকা ছিল
কত “না লেখা চিঠি” পড়ে ছিল
না বলা কথার আকুলতা ছিল
আর? সবশেষে ছিল শূন্য।

হাজার আশায় বুক বাঁধা ছিল
একটি শিশুর ছায়া পড়েছিলো
যতন আদর সবকিছু ছিল
পথের শেষে? ছিল শূন্য।

এক টুকরো হাসিমুখ ছিল
রহস্যমাখা রাতগুলো ছিল
অবসরে তার ভাবনা ছিল
বুঝিনি মোটেই, সবশেষে ছিল শূন্য।

কত মধুময় প্রতিজ্ঞা ছিল
আশ্বাস ছিল বিশ্বাস ছিল
কত না হিসেব মেলাবার ছিল
যোগফলে ছিল শূন্য।

ভেবেছি আমার কত কিছু ছিল
ছিল না তা নয়, সত্যিই ছিল
তিনটি বস্তু প্রকৃতই ছিল
শূন্য, শূন্য, শূন্য।