লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২ জুন ১৯৮৭
গল্প/কবিতা: ৮টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftবাংলার রূপ (এপ্রিল ২০১৪)

কি চেয়েছি, কি পেয়েছি
বাংলার রূপ

সংখ্যা

মোট ভোট

তৌহিদুল ইসলাম তানিন

comment ৭  favorite ০  import_contacts ৮৫৯
মিছে মামলায় হাজত খাটছে দেখো, কতনা ভগিনি-সহোদর
কিছু মাল খসালেই নাকি, রিমান্ড অব্যাহতি দেয় জালিম-চর
নেতা-নেত্রীর বাড়ি, আগুনে সেঁকা খায় কত, আমারি বোন
কু-চিকিৎসায় ধুঁকে ধুঁকে মরে দেখো, ভাই-বন্ধু-আপনজন

পরদেশে, রাষ্ট্রদূতের ঘরে লাঞ্ছিত-নির্যাতিত হয় আমার ভাই
ও মা! এমন স্বদেশের কথা, কোথায়ও তো তুমি শুনো নাই
হাসপাতাল পাওনার কমতিতে, বিক্রয় করে নবাগত সন্তান
চেয়ে দেখো, আসছে ধেয়ে নষ্টামিতে ভরা ফ্ল্যাশ মবের বান

সোনার ছেলে বিমানে চড়েই হাউমাউ কাঁদে, মা কে ভেবে
লাশ হয়ে ফিরলে তবে, এই ছেলের রক্তের দাম কে দেবে?
ছয়-চার মারা খেলোয়াড় দেখো, কতনা অশ্লিল ভঙ্গি করে
আবার, এরেই নাকি পূজনীয় ভেবে লোকের ফুলঝুড়ি ঝরে

নির্বাচনের ছ’মাস না যেতেই, কলাগাছ হচ্ছে চামচিকার দল
এরাই নাকি বাংলাকে ভালোবাসে, কেমনে বিশ্বাস করি, বল?
জোর করে গাওয়ানো জাতীয় সঙ্গীতে, কেন ব্যয় ৯০ কোটি?
একটু ভালো করে দেখলে বুঝি, পিছনে আছে আমলার টুঁটি

বর্ষাকালেই হিড়িক পড়ে কেন, সরকারী কাজের তাবেদারী?
দু-মাস যেতে না যেতেই রাস্তা বলে, ছেড়ে দে, সইতে নারি!
আমার খরচে তৈরী হওয়া ফ্লাইওভারে, দ্বিগুন টোল দিতে হয়
মাগো! এখন নাকি রাস্তায় টোল লাগবে, কেমনে প্রাণে সয়?

নেতার আগমনে কোমল শিশুদের রোদে দাঁড়িয়ে থাকা কেন?
ক’দিন বাদে এ নেতাই বলবে, দেশটাকে কিনেছি যে, জানো?
প্রতিবেশী বাবুর ঘরে পাঠাই রাশি রাশি ইলিশ ও শাড়ির বহর
একহাতে গ্রহন করে প্রভু, অন্য হাতে আটকায় পানির নহর

৯০ শতাংশ মুসলিমের দেশে বাঙ্গালী জাতীয়তা নিয়ে টানাটানি
দাঁড়ি-টুপি-আলেম দেখলেই, সেকুলারদের কেন এত চুলকানি?
ইসলামের সাথে তোদের যদি, এতটাই থাকে অঘোষিত সংঘাত
কথায় কথায় হুজুর ডেকে, করিস কেন কুর‘আন তেলাওয়াত?

বিলাতে, দেশী নারীর নগ্ন বুকে লিখা থাকে, মেড ইন বাংলাদেশ
ক্রিকেট মাঠে এক সবাই, বাকি ঐক্য সব বাদ, আহা! বেশ বেশ!
সতীর্থের মাথা কাটছি হেসে; দল আগে, কোথাকার আবার ভাই!
রাত-দিন চেতনাবাজি করছি সকলে, আসল চেতনার খবর নাই

বিদেশী প্রভুর মতে-ইংগিতে চলবে কেন দেশের পুতুল সরকার?
পরিজনহারা বলেই বুঝি, প্রভুর দেশে জমাবি উপরি-রোজগার!
গোলামীর শৃঙ্খল-রাহু মুক্ত হতে; করেছি কত ত্যাগ, কত প্রয়াস
এক জালেমের বিদায়ে, আরেকজনের কাছে কেন মাথা নোয়াস?

বহু আগেই স্বাধীনতা পেয়েছি মাগো, স্বাধীন তো কখনোই হইনি
কলংকের এহেন বোঝা বয়েছি শুধু, সাফল্যের মুকুট কভূ বইনি
সোনার দেশকে ভালোবাসি সবাই, করে সোনার মানুষ দূর-ছার!
এই যদি হয় বাংলার রুপ, চর্মচোখে দেখতে চাইনা মাগো, আর!

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement