যাদুবিদ্যে জানা নেই, অহর্ণিশ ভেবে চলি
নিজ হাতে কুড়াণো ফুলের মালা পরাব বলে।

পরাভূত জীবনে সেই সময় আজও আসেনি
ঘড়ির কাটার ফাঁক গলে সময় গড়ায়, অশ্রুত
সুরের রাগিনি বুঝি বাজে, কঙ্কণ পায়ে সন্তর্পণে
জানালায় উকি দেয় প্রেয়সীর মুখখানি, চাঁদ মুখ।
হাত বাড়ায়ে ছুঁয়ে দেখা হয়নি সেদিন।

পেয়ালা পূর্ণ মদিরা ছিল সাজানো পান করিনি
বইয়ের পাতা ওলটানো ছিল সেই কবিতাটি
আজও পড়া হয়নি, জানা নেই কত আবেগ
অনুভূতি মাখাছিল কবিতার ছত্রের গায়ে।

প্রতিটি শব্দে গোলাপের সুভাস ছড়ানো ছিল
ঘ্রাণ নেয়া হয়নি আজও অজান তোমার
হৃদয়ের কাহিনী, অপূর্ণতা এক বিস্ময়।