আমার হাতে খুব একটা সময় নেই ভালোবাসা,
কলিংবেলের শব্দেও চমকে উঠি; অপাংক্তেয় বানের
জলের মতো বয়ে যায় আমার দুর্লভ সময় খরচের
খাতা; কোনোদিন বুঝতে চাইনি টাইম রেসপ্যাক্ট,
সমস্ত জীবন একটি দুরাচার সিন্ডিকেট চক্রে বাঁধা;
আমারও অপেক্ষার লেশমাত্র ছিলো না—সুতোকাটা
ঘুড়ি, ভুলেই গিয়েছিলাম আমি যেখানে-সেখানে
থেমে যেতে পারি------------!

এখন তড়িঘড়ি করি, এতোটুকুন বোতলে ভরি
ইপিল ইপিল দীর্ঘশ্বাস, আমার সামনেই বাতাসে লীন
হয় সমস্ত রঙিন আশ্বাস; এ যেনো একটা ডকুমেন্টারি
ফিল্ম, যার সবকিছু আগে থেকেই ছিলো ঠিক করা;
কোনোদিন অমন ভাবতেই পারিনি--
একটার পর একটা স্টেশন, সাব-স্টেশন চটজলদি
এতো সহজে পার হয়ে যাবো---!

এখন আমি সবকিছু দেখি শীতলচোখ আর নিরিবিলি,
বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে কামিনী ফুলের ঘ্রাণ, দারুচিনি
এলাচের সুগন্ধ; অথচ আমার সমস্ত শরীর, মন যেনো
কোনো এক খিল আঁটা জানলা; আর আমার অপেক্ষারা
এখন নাম-গোত্রহীন প্রেসক্রিপশন, ঠিক ঠিক ঠাহর
করতে পারি গেছো ব্যাঙের ছা, এখন দেখি কী আজব
অপেক্ষা দুই নৌকোয় আমার পা----- --!!