পরাধীন থাকা একটা বোবা প্রাণীর দ্বারাও সম্ভব নয়
চায় মুক্তির নীল আকাশে ঘুরে বেড়ানোর স্বাধীনতা,
খাচায় বন্দি থাকা পাখিটাও মুক্তি চায়, চায় মুক্তপ্রথা
পাখিটা আদর-আহ্লাদ পেলেও ঐ খাচা থেকে মুক্তি চায়।
তাহলে কেন মানুষ পরাধীনতা মানবে?
আমরা বাঙ্গালী, অন্যের আতংকে স্বাধীনতা কেন হারাব?
বাঙ্গালীর প্রাপ্ত উন্মুক্ত স্বাধীনতার নীল আকাশে
পরাধীনতার কালো মেঘমালা উড়ঁতে দেব না,
প্রয়োজনে স্বাধীনতা আনতে জীবন উৎসর্গ করে দেব।
তাই তো মুক্তিযোদ্ধারা মুক্তির চেতনায় জাগিয়ে তুলে
বাংলার বুকে থাকা প্রতিটি মুক্তপ্রাণকে,
কেড়ে আনে কঠোর অতন্দ্র প্রহরী মুক্তিযোদ্ধারা
নিজের শ্বাস-নিশ্বাস এবং অস্তিত্বকে।
সেই ৭১ সালের স্বল্পমেয়াদী মুক্তিযুদ্ধের ফলে
ঐ বাংলাকে করেছি আমরা মুক্তিরনীড়,
এখন বাংলার নয়া দিগন্তে লাল সবুজে কত মানুষ
মুক্তমনে প্রাণখোলা হাঁসিতে জমায় ভিড়।