কিছু কিছু ছেঁড়া ভাবনা নিয়ে ছেঁড়াদ্বীপে গিয়েছিলাম
ওখানে কেবল মৃতপ্রায় প্রবাল আর মনমরা কেয়া
মাঝেমাঝে সমুদ্র ছিঁড়ে ওড়ে আসে আমার মতো কিছু
মনবিলাসী মানুষ..…..
তারা কেবল রতিবিলাসে দৌড়ে আসে
তখন ওদের কোনো হুশ থাকে না... হুশ!

তবুও ছেঁড়াদ্বীপের উদার আকাশ আর মুক্তমনা বাতাস
পংগপালের মতো ছুটে আসা মানুষদের স্বাগত জানায়
পাথরে, প্রবালে বসতে দেয়
নোনতা জলের আস্বাদন দেয়!

তবুও স্বার্থপর কিছু মানুষ ওকে ভালো থাকতে দেয় না
তারা তস্করের মতো ছেঁড়াদ্বীপের বুক ছিঁড়ে প্রবাল কুঁড়ায়
পলিথিন আর অপ্রকৃতিস্থ বর্জ্য পদার্থে পরিবেশের বারোটা বাজায়!

এতোটুকুই শেষ কথা নয়
আরো সাংঘাতিক ভয় আছে... ভয়
তবুও ছেঁড়াদ্বীপ নাসাকার রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে রোজরাতে
একবার করে ঘুমাতে যায়
তবুও ছেঁড়াদ্বীপ মানুষের মতো ইনিয়ে বিনিয়ে কথা বলে;
তার কষ্টের কথা ভাষ্য হয়--- বাতাসে ভেসে ভেসে
"আমার কাছে মানুষের চেয়ে কুকুর ঢের বেশি আসে"!!!
ছেঁড়াদ্বীপ ভাবে সরকারের এতো এতো চোখ নগদ আছে
কেবল আমার জন্য কোনো চোখ নেই... চোখ নেই!!!