হঠাৎ পৃথিবী ঘুমায়

 

সুনসান নিরবতা রাজপথে

 

নির্জন বসে কাঁদে,

 

রেস্তোরা আর কফি হাউসের কফির পেয়ালা।

 

থেমে গেছে আইনের কবিতায়,

 

বীভৎস কায়দায় মুসলিম নির্যাতনের বিকৃত আচার।

 

ভেঙে গেছে বিজ্ঞানের দেয়াল,

 

ভেসে উঠেছে দৈন্যতার খোলস।

 

ছিড়ে গেছে প্রযুক্তির শিকল,

 

হাঁসফাঁস হা হুতাশের বেড়েছে শিকড়।

 

আবদ্ধ জীবনে নিঃসঙ্গতার বন্ধন,

 

চেতনার চিলেকোঠায় হারের ক্ষত,

 

শুকনো হাসির আড়ালে বুক ফাটা ক্রন্দন।

 

 অন্দরে অন্দরে আহাজারি,  

 

ঘোঙ্গানি আর মৃত্যু বিলাপ।

 

নেই একফোঁটা রক্তপাত অথচ ঘরে ঘরে লাশ।

 

নিঃশ্বাসের হিসেব মেলানো  ঘোর মৃত্যুর মিছিল।

 

 

 

তুমি মানুষ, তুমিই দেখাতে ক্ষমতার দাপট!

 

আজ কোথায় তোমার সেই প্রতাপ?

 

কোথায় তোমার রাজত্ব কায়েমের হুংকার?

 

খোদার আরশ কাঁপিয়ে ভেবেছিলে পার পেয়ে যাবে?

 

 

 

এখনো সময় আছে চোখ মেলে  তাকাও।  

 

ক্ষমতা কার? কে তোমার সহায় ? হৃদয়ের চোখ বুলাও।

 

ঠিক টের পেয়ে যাবে আজ তুমি কতটা অসহায়?

 

টের পাবে কার অসহায়ত্ব আজ মাথা কুটে মরে?