দীর্ঘশ্বাস ছাড়া আর কিছু নেই
কাঁদতে ভুলে গেছি সেই কবে...
চোখ দুটো আজ অশ্রুশূণ্য।
রক্তিম চোখে তাই ঝরে পড়ে
নীরব প্রতিবাদের ভাষা।
তবুও আমি নিশ্চুপ থাকি
জমাট কষ্ট বুকে নিয়ে।
অবাক হয়ে আজও ভাবি
এদেশ কি পেয়েছে সত্যিকারের মুক্তি,
বিজয়ের চার দশকেও?
যেখানে স্বপ্নের মৃতু্য ঘটে প্রতিনিয়ত,
কাঁটাতারে ঝোলে ফেলানীর লাশ।
যেখানে বুৃক ফুলিয়ে আজও ঘোরে
ঘাতক হায়েনার দল।
সেখানে আমি নির্বাক থাকি
আর দশজনের মতোই।
জানি এদেশে সত্য বলা পাপ
জনগন যেখানে খেলার পুতুল
পাল্টা রাজনীতির রোষানলে।
সেখানে আমি বিচার চাইব কার কাছে?
তাহলে কি বৃথা গেল লাখো আত্মত্যাগ?
বৃথা গেল ধর্ষিতা বোনের করুণ চিৎকার?
কোনোই মূল্য নেই আমার বাবার
রক্তমাখা সেই শার্টটির?
তবুও আমি গর্ব কওে বলি
আমার বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা,
আমি বাঙালির সনত্দান,
মনে প্রাণে আমি বাঙালি...