লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৭ অক্টোবর ১৯৭৩
গল্প/কবিতা: ৫৯টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - নগ্নতা (মে ২০১৭)

প্রেমানুভবে ঈশ্বর
নগ্নতা

সংখ্যা

মোট ভোট

প্রদ্যোত

comment ৭  favorite ০  import_contacts ৬৪৬
অনেক রাত
অনুভবে তোমার খুব কাছাকাছি আমি
আমার প্রতিটি নিঃশ্বাস দখিনা বাতাসে তোমার খোলা বাতায়ন দিয়ে
ছুঁয়ে যাচ্ছে তোমার পেলব শরীরের প্রতিটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ
প্রতি মুহুর্তে আলোড়িত হচ্ছে অনাঘ্রাত কুমারীর তনুলতা
আমার স্বত্ত্বা তোমাতে মিলে যাচ্ছে অন্তহীন সুখে শ্বাশত ভালবাসায়

তুমি কি অনুভব করছো আমার অস্তিত্ব তোমাতে
তোমার যে উষ্ণতা ছড়িয়ে পরছে অদূরে শয়নে
তা আমার কামনার অগ্নি থেকে উৎসারিত
কল্পনায় আমার অধীর ঠোট
তোমার অনন্ত কামাগ্নির জ্বলামুখে ডুবে যাচ্ছে ক্রমাগত
পাগলপারা আমার সমস্ত আকাংখা ক্রমান্বয়ে নিমজ্জিত তোমাতে
আমার তৃষ্ণা তোমার অধরের সুধা পানে আরো বর্ধিত
সৃষ্টির শুরু থেকে শেষ অবধি প্রসারিত যেন

তুমিও পাগলপ্রায় আমাকে নিবিষ্ট বন্ধনে বেঁধে পরম সুখে বিলীন
তোমার কোমনীয় পেলবতা আমাকে গ্রাস করছে গভীর আকর্ষণে
তুমি-আমি একাকার এক অখন্ড মোহে
ছুঁয়ে তোমার সব সুন্দরতম সুখ-ভাস্কর্য্য
আমি উন্মাদ যেন মহাজাগতিক সৃষ্টি সুখের উল্লাসে
দলিত-মথিত পরস্পরে যেন ক্রমাগত মিলিয়ে যাচ্ছি পরম শুন্যতায়

আমাদের নিবিড়তম আলিঙ্গনে
অন্ধকার আলোকিত হয় তারার আলোকসজ্জ্বায়
সৃষ্টি হয় অগুণতি ছায়াপথ,সৌরমন্ডল, নক্ষত্র, নিহারিকা, ধুমকেতু
সহস্র গ্রহে জাগে প্রাণস্পন্দন
সবুজে সবুজে ছেয়ে যায় গ্রহের মৃত্তিকা,বাড়ে তৃণ, বাড়ে বৃক্ষ
ফুলে-ফলে সুশোভিত প্রকৃতি আনন্দে মাতে
উচ্ছ্বল বাতাস বয়ে যায় ক্ষণে ক্ষণে
হাজারো প্রাণে পুলক জাগে প্রেমের

প্রেমেই সৃষ্টি, মিলনেই প্রসারিত মহাজগত
বিস্তার, অতিবিস্তার, মহাবিস্তারে বর্ধিত সৃষ্টির যাবতীয় সব
এভাবেই বাড়ে আমাদের প্রেমানুভূধিতযা ঈশ্বরেরই নামান্তর
নশ্বর থেকে অবিনশ্বর সবই আমাদের প্রেম-নিসৃত
অসীম বর্ণিল বর্ণহিনতায় পরম শূন্যে আমরা একক
আবার বিভাজিত পুনঃমিলনের আকাঙ্খায়

আমাদের স্বত্ত্বার অখন্ড বিভাজনে আমরা এক থেকে দুই
এবং দুই থেকে এক হই বারবার
অনন্তে আলোক কিংবা আলোকিত অনন্ত
যা সৃষ্টি, যা স্রষ্টা, যা এক ও অখন্ড স্বত্ত্বা অনন্তের জ্যোতি পরমেশ্বর
তা তোমার-আমার মিলনের বিস্তৃত প্রকাশ
তোমাতে বিলীন হয়ে আমি আমাকেই পাই খুঁজে
সকল পার্থিব কোলাহলকে উপেক্ষা করে
নিরবিচ্ছিন্ন নিরবতায় বারংবার হারাই দুজনে
স্রষ্টাকে পেতে একান্ত কাছে

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement