পাখ পাখালির হাজার সুরের মাতন আর
কলমিলতা পদ্ম শালুক পাতার ঢং
লাল সাদা নীল হলুদ ফুলের রূপ বাহার,
মেঘের গায়ে নদীর জলে হাজার রং।

সাঁঝের কালে কোমল ভালে সন্ধ্যা টিপ
আঁচল দোলায় মৃদুল বাতাস দোলায় মন
একটি দুটি হাজার তারায় জ্বালায় দ্বীপ
হীরের জরি, চুমকি বসা তার বসন।

চাঁদ ঢেলে দেয় রূপালি রূপ অঙ্গে তার
ঝিঁঝিঁর সুরে জোনাক জ্বালা আলোক জাল,
সারাটা রাত গল্প শোনায় সাগর আর
ভোরের রবি উঁচিয়ে ধরে রঙমশাল।

ঢেউ দোলদোল সবুজ আঁচল ধানের মাঠ,
তার সীমানায় জল টলমল নদীর বুক,
একটু দূরে আমের বন আর গ্রামের ঘাট
এইতো আমার বাংলা মায়ের অরূপ মুখ।