হৃদয়ের অন্তঃ কুঠিরে বহে প্রবল বিক্ষুব্দ ঝঞ্জা ঝড়,
সামলাতে গিয়ে টালমাটাল হয়ে যায় প্রতি মুহুর্ত।
পা হরকে অতল গহবরে হারিয়ে যাওয়ার ভর,
তবুও সাহসি নাবিক পেয়ে যায় বেঁচে থাকার শর্ত।
সময়ের স্রোতের আবর্তে উথাল-পাথাল হয় সমুদ্র,
কি জানি কখন হারিয়ে যায় তা গহীন অতলে।
অনিমেষ নিঃশ্বাসের পথটুকু হয়ে যায় বড় রুদ্র,
নিরন্তর নিজেকে হারিয়ে খোজা সময়ের বলে।
চারিপাশে হাজারো অপূর্ণতা সদা পূর্ণতার খোজে,
অহর্নিশ বয়ে চলে সে যে প্রানান্তকর চেষ্টায়।
অপ্রাপ্তি আশাগুলো নিয়ে কাউকে কি বোঝে?
সদায় ডুবে যাওয়া প্রবল না পাওয়ার তেষ্টায়।
সময় দিক শুন্য করে দেয়, তবু খুজি দিক।
আলোর আশায় আলেয়ার পিছে ছুটে চলা,
শক্ত হাতে হাল ধরে হতে চায় দীপ্ত নাবিক।
কারো কাছে অভিযোগ নেই, নাই কিছু বলা।
কেউ কি হয়েছে পুর্নাঙ্গ বা কোন অপূর্ণতা শুন্য,
সকলেরই আছে কিছু না পাওয়ার কিছু গল্প।
জীবনের উপ্যাখানে কেউ নয় শতভাগ পরিপূর্ণ,
অপূর্ণতা কারো হয় বেশি কারো বা তা অল্প।
হাজারো অপূর্ণতা জীবনে সাহসী হয় বারবার,
বেঁচে থাকার তাগিদে তবু নতুন স্বপ্ন নিয়ে বাঁচি।
সম্পূরক হতে না পারি তাতে ভয়ের কি কারবার,
জীবনের সাথে লড়ি থেকে জীবনের কাছাকাছি।