"কষ্ট''বুক ভরা কষ্ট নিয়ে জোছনায় ভরা নদীর ধারে বসে আছি। রাতের আধো আধারে ভরা নদীতে যখন মাঝি তার বাঁশি একটু করুন শুরে বাজায়, তখন আমার বুকের ভেতরের কষ্টটা জেগে ওঠে। নিশ্চুপ পৃথিবী, কষ্টের পাহাড় বেয়ে কাটতে থাকে রাত। ঐ চাঁদ কি জানে আমার এই ভালোবাসার কথা? আমার একবুক কষ্টের কথা?

রাত এখন ১২টা. একটু পরেই ১ টার ঘণ্টা বাজবে। কষ্ট বড় কষ্ট, কষ্ট তুমি আমার মনকে ছুঁইয়ো না হৃদয়কে ছোও! সত্যি সত্যি এবার কষ্ট ছুঁয়েছে আমার অস্তিত্ব। আগে এই ঘরে থাকতো প্রিয়ার ছবি কিন্তু হঠাৎ একদিন সেই ছবি অজানা এক ঝড়ে উড়িয়ে নিয়ে গেল। এখন এই ঘরে আমি আর আমার এক বন্ধু থাকি। তার নাম কি জানো? তার নাম কষ্ট! সে এখন আমার খুব আপন বন্ধু। অনেক রাতে সে আসে আমাকে জাগায় গল্প করে, গল্প শেষ হলে আবার চলে যায়।

কখনো কখনো অনেক গভীর রাতে স্বপ্নের মাঝে বর সেজে গেছি তোমার বাড়ীতে, গিয়ে দেখেছি এক জনশূন্য নিঃস্বতা। ভাবতাম,প্রিয়ার সবকিছুই যেন ঘিরে আছে আমাকে নিয়ে। তবে ভিন্ন আয়োজনে আমাকে এভাবে চমকে দেবে তা কখনো ভাবিনি। তিল তিল করে যে ভালবাসার নীড় গড়ে ছিলাম, একদিন বিকেলে দেখি তার কিছুই আমার নেই। লাল টুকটুকে শাড়ী পরে মাক্রোবাসে চরে চলে যাচ্ছে অজানা এক নতুন সংসারে।

নদী যেমন শুকিয়ে যেতে পারে, সাগর তার স্রোতের গতি থামিয়ে দিতে পারে, ঠিক তেমনি থেমে যেতে চায় আমার জীবন। শুকনো পাতার মতো মন দিয়ে বাধা পড়লো আমার জীবনের ভালবাসা। হঠাৎ করে কখনো কখনো আমার মন মুক্ত পাখির মতো ডানা মেলে উড়তে চায় আকাশে, কিন্তু পারেনা। আমার মন থেকে তুমি কোনো দিন হারাবেনা। এই উদাসী মনে থাকবে শুধু তোমাকে না পাওয়ার কষ্ট..!

"কষ্ট'' আমার এতো কষ্ট কেন জান? তোমাকে যে আমি বড্ড বেশি ভালোবাসি কিন্তু তুমি তার প্রতিদান দিলে উল্টো। তোমার প্রতিটি স্মৃতি এখন আমার প্রতিদিনের যন্ত্রণার সঙ্গী। এখন কষ্ট মানেই নীল আকাশে মেঘে ঢাকা চাঁদ, কষ্ট মানেই বৃষ্টি হীন মেঘের গর্জন,
কখনো হাঁসাও, কখনো বা কাঁদাও, কখনো বাস্তবে আবার কখনো বা স্মৃতির পটে, কখনো বহুরূপী কখনো রহস্য ময়ী। হয়তো তুমি নও তোমার ছায়া, তবুও তো তোমারই মতো।

অনেক রাতের নির্জনতায় চারদিকের শন শন বাতাসের গর্জনে কষ্টের মাত্রা বেড়েই চলেছে। দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে কষ্টটা ঢাকার চেষ্টা করি। তখন তোমার সব স্মৃতি এসে ভিড় করে আমার মনের দরজায়। ঘুম আসেনা সেই রাতে। শুধু তোমার কথা ভেবে ভেবে কেটে যায় রাত ।

কষ্টের রাত !!!!! কষ্টের রাত !!!!! কষ্টের রাত !!!!!